• শনিবার   ০২ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৮ ১৪২৯

  • || ০৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

কিডনি সুস্থ রাখতে যা করণীয়

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৮ মে ২০২২  

কিডনি মানবদেহের এমন একটি অঙ্গ, যা শরীরের যেকোনো অসংগতির সঙ্গে মানিয়ে চলার চেষ্টা করে। তাই নিজের অল্পবিস্তর ক্ষতি নিয়েও শারীরিক কার্যাবলি চালিয়ে যায় নিরন্তর। যত দিনে কিডনি সমস্যা প্রকাশিত হয়—তত দিনে অনেক দেরি হয়ে যায়। তাই কিডনি সমস্যা হওয়ার কারণ ও সেটার প্রতিরোধ সম্পর্কে জানা খুব জরুরি।

কিডনির নিজস্ব সমস্যা থাকার পাশাপাশি অন্যান্য রোগ যেমন—অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপের কারণে কিডনির মারাত্মক ক্ষতি হয়ে যায়। তাই সাবধান থাকার বিকল্প নেই।

যেসব অভ্যাস কিডনির জন্য ক্ষতিকর

♦ পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান না করা—পানিশূন্যতার কারণে কিডনির ওপর প্রতিনিয়ত চাপ পড়ে ক্ষতির কারণ হয়

♦ খাবারে অতিরিক্ত লবণ বা পাতে কাঁচা লবণ খাওয়ার অভ্যাস—এটা প্রমাণিত যে অতিরিক্ত লবণ শরীরে পানি ধরে রাখে ও উচ্চ রক্তচাপ ঘটিয়ে প্রকারান্তরে কিডনির ক্ষতি করে

♦ অতিরিক্ত পরিমাণ প্রাণিজ আমিষ খাওয়া—অতিরিক্ত আমিষ ক্রিয়েটিনিন বাড়ায়

♦ ধূমপান করা, মদ ও অন্যান্য মাদক গ্রহণ

♦ চিনি ও চিনিজাত খাবার বেশি খাওয়া—ডায়েবেটিসের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়

♦ জাংক ফুড বেশি খাওয়া—জাংক ফুড সোডিয়ামে ভরপুর থাকে, কিডনির ওপর চাপ সৃষ্টি করে

♦ পর্যাপ্ত পরিমাণ না ঘুমানো

♦ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবন—বিশেষ করে ব্যথানাশক

♦ কর্মহীন অলস জীবনযাপন

করণীয়

♦ প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি ও তরল খাবার গ্রহণ করা

♦ সতেজ ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলা

♦ রক্তের সুগার এবং ডায়াবেটিস (যদি থাকে) নিয়ন্ত্রণে রাখা

♦ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা

♦ কর্মচঞ্চল জীবন যাপন করা

♦ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোনো ওষুধ, বিশেষ করে ব্যথানাশক ওষুধ না খাওয়া

♦ ধূমপান ও মদপান পরিহার করা

♦ খাবারে চিনি ও লবণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করা

পরামর্শ দিয়েছেন

ডা. মো. মনিরুল ইসলাম ফাহিম

রেসিডেন্ট, নেফ্রোলজি বিভাগ, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ