• শনিবার   ২৮ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৯

  • || ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩

তিন জেলায় আওয়ামী লীগের সম্মেলন শিগগিরই

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২  

জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে দেশব্যাপী সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদার করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। এর ধারাবাহিকতায় চলতি মাসের শেষের দিকে তিনটি জেলায় সম্মেলন করবে দলটি।

দলীয় সূত্র বলছে, আগামী ১৯, ২০ ফেব্রুয়ারি পাবনা ও সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগের জেলা সম্মেলন হবে। দুই জেলার সম্মেলনের আটদিন পর ২৮ ফেব্রুয়ারি নাটোরে সম্মেলন করবে আওয়ামী লীগ। এরই মধ্যে সম্মেলনকে সফল করতে মাঠে নেমেছেন আওয়ামী লীগের বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা।

জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২ ডিসেম্বর নাটোর, ২০১৪ সালের ২০ ডিসেম্বর পাবনা এবং ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিলো। ঐ সম্মেলনের প্রায় সাত বছর পর ২০২১ সালের ২৮ ডিসেম্বর পাবনা, নাটোর ও সিরাজগঞ্জ জেলার সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করে জেলাগুলোতে চিঠি ইস্যু করে আওয়ামী লীগ। সে অনুযায়ী আগামী ১৯, ২০ ফেব্রুয়ারি পাবনা ও সিরাজগঞ্জ, ২৮ ফেব্রুয়ারি নাটোর জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

এরই মধ্যে সংগঠনের জেলা, উপজেলাগুলোর নেতাদের সঙ্গে দলীয় কার্যক্রম নিয়ে বৈঠক করে নির্দেশনাও দিয়েছেন বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা। জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দলের সভাপতির নির্দেশনা অনুযায়ী তৃণমূল পর্যায়ে সম্মেলন করে সংগঠনকে নতুন করে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনার কথাও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। তাই অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব মিটিয়ে দলকে ঐক্যবদ্ধ করে নির্বাচনী প্রস্তুতি এগিয়ে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ। এর লক্ষ্যেই এ বছরে মেয়াদোত্তীর্ণ কয়েকটি সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন ছাড়াও আওয়ামী লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা-উপজেলা, পৌরসভার সম্মেলন করবে দলটি।

বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের বৈঠক সূত্রে আরো জানা গেছে, দলের মধ্যে থেকে যেসব নেতাকর্মী বিভিন্ন নির্বাচনে দলের নির্দেশনা অমান্য করে দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতা করেছে ও বিভিন্ন বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের শিরোনাম হয়েছে এবং দলে থেকে যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের উদ্দেশ্য করে কড়া বার্তা দেওয়া হয়েছে। দলের নিয়ম নীতি ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করার কারণে যাদের শোকজ করা হয়েছে এবং শোকজ চিঠিতে যাদের উত্তর সন্তোষজনক না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। আর যাদের বহিষ্কারাদেশ রয়েছে, এ আদেশ প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত তারা দলের কোনো পদে আসতে পারবেন না।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগের সম্মেলন হলো দলের নিয়মিত কাজের একটা অংশ। তবে জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য নেতাকর্মীরা কাজ করছেন। সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন করে দল সাজানো হবে।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেন, করোনার কারণে আওয়ামী লীগের জেলার সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থবির ছিলো। এখন আবার করোনা কাটিয়ে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদার করা হচ্ছে। চলতি মাসেই তিন জেলার সম্মেলন করা হবে। এ সম্মেলনের মাধ্যমে নেতাকর্মীরা নতুন করে ঐক্যবদ্ধ হবে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ