শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১

সিরাজগঞ্জে এনডিপির উদ্যোগে দুগ্ধপণ্য বহুমাত্রীকরণ উপকরণ বিতরণ

সিরাজগঞ্জে এনডিপির উদ্যোগে দুগ্ধপণ্য বহুমাত্রীকরণ উপকরণ বিতরণ

সংগৃহীত

এনডিপি সমন্বিত কৃষি ইউনিট এর প্রাণিসম্পদ খাতের আওতায় দুগ্ধপণ্য বহুমাত্রীকরণ এর মাধ্যমে ফ্লেভার্ড ইয়োগার্ড ও ঘি উৎপাদন বিষয়ক প্রদর্শনীর উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

পিকেএসএফ এর অর্থায়নে বুধবার সকালে এনডিপির প্রধান কার্যলয়ের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে উদ্যোক্তাদের মাঝে উপকরণ হিসেবে ক্রিম সেপারেটর মেশিন বিতরণ করা হয়।

বিরতণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. ওমর ফারুক।

এসময় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ডেইরি শিল্পের উন্নয়নের প্রধান মাধ্যম দুগ্ধপণ্য বহুমাত্রীকরণ ও বাজারজাতকরণ। দুগ্ধপণ্য বহুমাত্রীকরণ এর মাধ্যমে মিষ্টান্নসহ দুধের তৈরি যাবতীয় খাদ্যসামগ্রী তৈরী করা হয়। বহুকাল আগে থেকেই বাংলাদেশের মানুষের খাবারে দুগ্ধজাতপণ্য ঐতিহ্যগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। উল্লেখযোগ্য হারে আমাদের দেশে দুগ্ধজাতপণ্যের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই এই খাতে উন্নয়নের মাধ্যমে নিজের ও অন্যদের জীবিকা নির্বাহের অন্যতম মাধ্যম। আপনারা এই খাতকে ব্যবহার করে গতানুগতিক পণ্য থেকে বের হয়ে ভিন্নধর্মী পণ্য উৎপাদন যেমন চিজ, মাখন, ম্যাঙ্গ মিল্ক, মিল্ক ট্রফি ইত্যাদি তৈরী করেন তাহলে আপনারা আরও বেশি লাভবান হবেন।

এসময় এনডিপির পরিচালক (ঋণ সহায়তা কর্মসূচি) মোসলেম উদ্দিন আহমেদ এর সভাপতিত্বে বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ জেলা ভেটেরিনারি অফিসার ডা. মো. সাহাবুদ্দিন, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. আলমগীর হোসেন, এনডিপি আরএমটিপি প্রকল্পের পিএম মাসুদ মন্ডল, এনডিপির প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মইনুল হাসানসহ উদ্যোক্তা শামীমা সেতু, রিন্টু ঘোষ ও মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ উদ্যোক্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের আমরা বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছি। আপনারা সেই প্রশিক্ষণলব্ধ্য জ্ঞান থেকে এবং নিজেদের মেধা ও স্বদিচ্ছাকে কাজে লাগিয়ে গতানুগতিক পন্য উৎপাদন না করে নতুন নতুন পন্য উৎপাদন করুন। যা আপনাদের কর্মক্ষেত্রকে আরও বেগবান করবে। আপনার নতুন পন্য হিসেবে ম্যাঙ্গ মিল্ক, মিল্ক ট্রফি, চিজ, মাখন ইত্যাদি পণ্য উৎপাদন করতে পারেন। আপনাদের পাশে পিকেএসএফ ও এনডিপি রয়েছে। আপনাদের পণ্যের মানউন্নয়নসহ পণ্যের বিপনন সৃষ্টিতে আমরা সবসময় আপনাদের কারিগরি ও আর্থিক সহায়তা প্রদান করব। উদ্যোক্তা শামীমা সেতু এনডিপিকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আমি দুগ্ধপণ্য ঘি ও মিষ্টি উৎপাদন করে তা অনলাইন ও অফলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করি। এখন প্রশিক্ষণ ও উপকরণের মাধ্যেমে আমি বিভিন্ন ধরণের ও উন্নতমানের পন্য অনলাইন ও অফলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করে আমার ব্যবসাকে সম্প্রসারণ করতে পারব বলে আশা করছি। এজন্য আমি এনডিপিকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাই।

সর্বশেষ: