শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বুদ্ধি আর পরিশ্রমে যেভাবে ৬ সপ্তাহে আইফোন-১৪ কিনলো স্কুলছাত্রী

বুদ্ধি আর পরিশ্রমে যেভাবে ৬ সপ্তাহে আইফোন-১৪ কিনলো স্কুলছাত্রী

মাত্র ১২ বছরের মেয়ের হাতে আইফোন-১৪ তুলে দিতে রাজি হননি মা-বাবা। কিন্তু মেয়ে ঠিকই জেদ ধরে বসে আসেন; তার আইফোন লাগবেই! শেষে মাত্র ৬ সপ্তাহ কঠোর পরিশ্রম করে নিজেই তার স্বপ্নের আইফোন-১৪ কিনে নিয়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ের এক স্কুলের সপ্তম শ্রেণিতে পড়েন বাইনকা জেবি ওয়ারিয়াবা। নিজের টাকায় আইফোন-১৪ কিনে সংবাদ মাধ্যমেরও নজরে এসেছেন তিনি। যেদিন আইফোনটি তার বাসায় ডেলিভারি দেওয়া হয়। সেদিনটি তার জন্য ছিল বিশেষ এক মুহূর্ত। সেই ঘটনাই শেয়ার করেছে খালিজ টাইমসের সঙ্গে। 

বাইনকা একদিন তার মা দুপুরে খাবারের জন্য তার বক্সে এক ধরনের রুটি দিয়ে দিল। সেই রুটি টিফিন পরিয়ডে সে তার বন্ধুদের সঙ্গে ভাগ করে খায়। রুটিগুলো এত মজাদার ছিল যে তার বন্ধুরা এর প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। এখান থেকেই তার ব্যবহার করা পরিকল্পনা মাথায় আসে। সে বন্ধুদের আর ফ্রিতে রুটি খাওয়াবে না। বরং তাদের কাছে রুটি বিক্রির পরিকল্পনা করল। যেখান থেকে টাকা আয় করে সে আইফোন কিনতে পারবে।

বাইনকা বাবা মা দুবাইয়ের পাঁচ তারকা হোটেলে চাকরি করেন। তারা দুজনেই বেকারি তৈরিতে দক্ষ। তার যখন তাদের মেয়েদর পরিকল্পনা শুনে তখন এক বাক্যে রাজি হয়ে যায়। বাইনকার বাবা একজন ভারতীয়। মেয়ের আবদারের কথা শুনে তাকে ব্যবসা করার জন্য ১০০ দিরহাম উপহার দেয়। মা তাকে বেকারি তৈরির কৌশল শিখায়।

প্রথমদিন বাইনকা ১০ দিরহামের রুটি বিক্রি করে। পরবর্তীতে সে প্রতিদিন ৬০ পিস রুটি বিক্রির অর্ডার পায়। একই সঙ্গে সে তার ব্যবসায়ে খাবারের আইটেম আরও বৃদ্ধি করে। এক পর্যায়ে তার স্কুলের বন্ধুরা এবং শিক্ষকরা তার ব্যবসায়ের ব্যাপক প্রশংসা করেন। 

মাত্র ৩ সপ্তাহ ব্যবসা করে ৩ হাজার দিরহাম আয় করে সে আইফান-১৪ ক্রয় করে।  মেয়ের এমন কাজে আনন্দিত মা।

 

আলোকিত সিরাজগঞ্জ