শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১

অঝোরে বৃষ্টি ঝরতে পারে শুক্রবার পর্যন্ত, যা জানালো আবহাওয়া অফিস

অঝোরে বৃষ্টি ঝরতে পারে শুক্রবার পর্যন্ত, যা জানালো আবহাওয়া অফিস

সংগৃহীত

এখন মধ্য আষাঢ়। লঘুচাপ ও মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে আকাশে মেঘের ঘনঘটা। প্রায় সব অঞ্চলেই কমবেশি দেখা যাচ্ছে বর্ষার অঝোর ধারা। আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, এই অবস্থা থাকতে পারে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেশের সব বিভাগের বেশির ভাগ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে। কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণও হতে পারে।

আগামীকাল বুধবার পর্যন্ত দেশের সব বিভাগে ভারি বর্ষণের আভাসও দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে ভারি বর্ষণের কারণে পাহাড়ধসের আশঙ্কাও রয়েছে।

অধিদফতরের ভারি বর্ষণের সতর্কবার্তায় জানানো হয়েছে, দেশের ওপর মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় সব বিভাগের কোথাও আগামী বুধবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভারি থেকে অতিভারি বর্ষণ হতে পারে। ভারি বর্ষণজনিত কারণে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে।

এদিকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও সংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি গত রবিবার মৌসুমি বায়ুর অক্ষের সঙ্গে মিলিত হয়েছে। মৌসুমি বায়ুর অক্ষটি ভারতের উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে ভারতের আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

লঘুচাপ না থাকলেও মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় এর প্রভাবে সমুদ্রবন্দর ও উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এ কারণে কক্সবাজার ও তিন সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত বহাল রেখেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

অধিদফতর সামুদ্রিক সতর্কবার্তায় জানিয়েছে, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু প্রবল অবস্থায় রয়েছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা সৃষ্টি হচ্ছে এবং বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ: