রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

পেটের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে মৌরি অতুলনীয়

পেটের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে মৌরি অতুলনীয়

সংগৃহীত

মৌরি আমাদের সবার পরিচিত একটি মশলা। মৌরির বৈজ্ঞানিক নামফোনিকুলাম ভালগার এটি গাজর পরিবারের একটি ফুলের উদ্ভিদ প্রজাতি।

পাঁচ ফোঁড়ন মশলার অন্যতম একটি হলো মৌরি। অনেক হোটেলে খাবারের শেষে মৌরি দেওয়া হয়। দেখতে অনেকটা জিরার মতো এই মৌরিকে দেখতে অনেক সাধারণ মনে হলেও এটি কিন্তু মানবদেহের জন্য ভীষণ উপকারী। 
নানারকম উপকারী সব খনিজ উপাদানে সমৃদ্ধ মৌরি খুবই চমৎকার একটি প্রাকৃতিক ওষুধ।

ঔষধিগুণ

(১) পেট পরিষ্কার রাখতে মৌরির তুলনা নেই। একইসঙ্গে এটি আমাদের হজমে সাহায্য করে এবং কোষ্ঠ্যকাঠিন্য কমায়। এতে থাকা ফাইবার খাদ্যকে পাচনতন্ত্র বেয়ে এগিয়ে যেতে সাহায্য করে। এছাড়াও মৌরিতে মধ্যে থাকা এস্ট্রাগল, ফেঙ্কন এবং অ্যানথল নামক উপাদান আমাদের হজম ক্ষমতা বাড়ায় এবং পাচক রসের ক্ষরণ এতটা বাড়িয়ে দেয় যে গ্যাস-অম্বল এবং বদ-হজমের মতো সমস্যা কমে যায়।

(২) মৌরিতে ভিটামিন ডি কমপ্লেক্স থাকায় এটি ত্বক ভালো রাখে এবং ব্রণ দূর করে। এছাড়াও এতে আয়রন, জিংক ও সেলেনিয়াম থাকায় এটি চুলকে শক্তিশালী করে। নিয়মিত মৌরি খেলে হরমোন ও অক্সিজেনের ভারসাম্য রক্ষা করে এটি আমাদের ত্বককে ঠান্ডা করে  এবং ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ায়।

(৩) মৌরিতে থাকা এক প্রকার তেল আমাদের রক্ত থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে পারে। মৌরি খেলে আমাদের শরীরে ফাইবার এবং এসেনশিয়াল অয়েলের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে শরীর থেকে টক্সিক উপাদান বের হয়ে যায়।

(৪) মৌরিতে থাকা ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট সাইনাসের সমস্যা দূর করে। একইসঙ্গে এটি ব্রঙ্কাইটিস ও কফের সমস্যা দূর করে এবং অ্যাজমার রোগীদের অনেক স্বস্তি দেয়। হাঁপানির সমস্যায়ও মৌরি খেলে উপকার পাওয়া যাবে। এছাড়াও মৌরি ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বাড়ায় এবং শ্বসন ক্রিয়া  ঠিক মতো হতে সাহায্য করে।

(৫) মৌরি চিবিয়ে খেলে লালায় নাইট্রেটের পরিমাণ বেড়ে যায়, যা প্রাকৃতিক উপায়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এছাড়াও এতে থাকা পটাশিয়াম আমাদের কোষ ও রক্তরসের জন্য দরকারি উপাদান হিসেবে কাজ করে।

(৬) মৌরি আমাদের দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে। এতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ভিটামিন এ এবং বিটা ক্যারোটিন। যা আমাদের দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি নানারকম চোখের সমস্যা কমিয়ে থাকে।

সর্বশেষ: