শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আজ হোলি স্যাটার ডে

আজ হোলি স্যাটার ডে

সংগৃহীত

আজ হোলি স্যাটার ডে বা পবিত্র শনিবার। গুড ফ্রাইডে এবং ইস্টারের মধ্যের এই শনিবারটিকে সব থেকে পবিত্র দিন হিসাবে বিবেচনা করা হয়। গুড ফ্রাইডের দিন ক্রশুবদ্ধ হন যিশুখ্রিষ্ট। শনিবার তার দেহ সমাধিতে রাখা হয়। ইতিহাস অনুসারে জানা যায়, যিশুর মৃত্যুর পরে, তাকে একটি কবরে সমাধিস্থ করা হয়, তৃতীয় দিনে ফের পুনর্জন্ম হয় তার।

হোলি স্যাডার ডে-এর পরের দিন অর্থাৎ রোববার রীতি অনুসারে, মরিয়ম মগ্দলীনী, শলোমী এবং মরিয়মসহ মহিলারা যিশুর দেহতে তেল ও নানা প্রকার মশলা মাখানোর জন্য কবরে গিয়েছিলেন। সেখানেই ঘটেছিল এক আশ্চর্যজনক ঘটনা।

সেদিন যিশুর সমাধি একেবারেই ফাঁকা অবস্থায় পাওয়া যায়। যিশুর দেহ খুঁজে পাওয়া যায়নি সেই সমাধিতে। এই ঘটনার প্রায় এক সপ্তাহ পরে যিশু তার শিষ্যদের দেখা দিয়েছিলেন এবং তার পুনরুত্থানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন।

পবিত্র শনিবার, বা ইস্টার ভিজিল, বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন রীতিনীতি মেনে পালন করা হয়। মেক্সিকোতে, এটি জুডাস দিবস নামে পরিচিত, যেখানে যিশুর সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতার কারণে জুডাস ইসকারিয়োটের প্রতিমূর্তি পোড়ানো হয়। চেক ঐতিহ্যে, এটি হোয়াইট শনিবার নামে পরিচিত, বিশুদ্ধতা এবং প্রত্যাশার প্রতীক।

বিভিন্ন সংস্কৃতিতে সূর্যাস্তের এক ঘণ্টা পর ফের যিশুর পুনর্জন্মের আগে অপেক্ষার প্রতীক হিসেবে এই দিনটি পালন করা হয়। আগুন এবং মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রেয়ার করা হয় হোলি স্যাটার ডে তে।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ