সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

আইএমও’র কাউন্সিল সদস্য নির্বাচিত বাংলাদেশ

আইএমও’র কাউন্সিল সদস্য নির্বাচিত বাংলাদেশ

সংগৃহীত

লন্ডনে অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম অর্গানাইজেশনের (আইএমও) কাউন্সিল নির্বাচন ২০২৩ এ ‘সি’ ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ ১২৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছে। প্রথমবারের মতো আইএমও’র ‘সি’ ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ বিজয়ী হলো।

যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার ও আইএমওতে স্থায়ী প্রতিনিধি সাইদা মুনা তাসনিম বলেন, ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম অর্গানাইজেশনের এলিট ৪০ সদস্যের কাউন্সিলে বাংলাদেশের নির্বাচন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণ নেতৃত্বে একটি সামুদ্রের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশের নেতৃত্ব ও পদক্ষেপের ওপর আইএমও সদস্য রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক মেরিটাইম কমিউনিটির আস্থা ও বিশ্বাসের সাক্ষ্য।

হাইকমিশনার বাংলাদেশকে কাউন্সিল সদস্য নির্বাচিত করার জন্য আইএমও সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং সামুদ্রিক সমস্যা মোকাবিলায় আইএমও’র কর্মপরিকল্পনার প্রতি বাংলাদেশের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন।

তিনি বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং ২০২৩ সালের আইএমও কাউন্সিল নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সাহসী সিদ্ধান্তের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান। এর আগে আইএমও’র ৩৩তম অধিবেশনে সর্বসম্মতিক্রমে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন সাইদা মুনা তাসনিম।

আইএমও জাতিসংঘের একমাত্র বিশেষায়িত সংস্থা যা বিশ্বব্যাপী শিপিং মান নিয়ন্ত্রণ করে। ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম অর্গানাইজেশনের অ্যাসেম্বলি ১ ডিসেম্বর ২০২৪-২০২৫ দ্বিবার্ষিক মেয়াদে কাউন্সিলের সদস্য নির্বাচিত করেছে। কাউন্সিল আইএমওর নির্বাহী অঙ্গ এবং সংস্থার কাজ তদারকির জন্য পরিষদের অধীনে দায়বদ্ধ। পরিষদের অধিবেশনগুলোর মধ্যে কাউন্সিল সামুদ্রিক সুরক্ষা এবং দূষণ প্রতিরোধের বিষয়ে সরকারকে সুপারিশ করা ব্যতীত বিধানসভার কার্যাবলী সম্পাদন করে।

ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম অর্গানাইজেশনের পরিষদ নিম্নলিখিত রাষ্ট্রগুলোকে ২০২৪-২০২৫ দ্বিবার্ষিক মেয়াদে কাউন্সিলের সদস্য হিসাবে নির্বাচিত করেছে:

ক্যাটাগরি ‘এ’

আন্তর্জাতিক শিপিং পরিষেবা প্রদানে সর্বাধিক আগ্রহী ১০ রাষ্ট্র (বর্ণানুক্রমিক ক্রম অনুসারে): চীন, গ্রিস, ইতালি, জাপান, লাইবেরিয়া, নরওয়ে, পানামা, কোরিয়া প্রজাতন্ত্র, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

ক্যাটাগরি ‘বি’

আন্তর্জাতিক সমুদ্র বাণিজ্যে সর্বাধিক আগ্রহী ১০ রাষ্ট্র: অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ভারত, নেদারল্যান্ডস, স্পেন, সুইডেন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত।

ক্যাটাগরি ‘সি’

ক্যাটাগরি ‘এ’ বা ‘বি’ এর অধীন নির্বাচিত নয় এমন ২০টি রাষ্ট্র, যাদের সামুদ্রিক পরিবহন বা নেভিগেশনে বিশেষ স্বার্থ রয়েছে এবং যাদের কাউন্সিলে নির্বাচন বিশ্বের সমস্ত প্রধান ভৌগলিক অঞ্চলের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করবে: বাহামা, বাংলাদেশ, চিলি, সাইপ্রাস, ডেনমার্ক, মিশর, ফিনল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, জ্যামাইকা, কেনিয়া, মালয়েশিয়া, মাল্টা, মেক্সিকো, মরক্কো, পেরু, ফিলিপাইন, কাতার, সৌদি আরব, সিঙ্গাপুর এবং তুরস্ক।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ