শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

অল্প সময়ে ডলারের বিনিময় মূল্যের অসামঞ্জস্যতা দূর হবে: গভর্নর

অল্প সময়ে ডলারের বিনিময় মূল্যের অসামঞ্জস্যতা দূর হবে: গভর্নর

আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ ক্যাশলেস সোসাইটির যে স্বপ্ন দেখছে, তা বাস্তবায়নে অনেকেটাই এগোনো সম্ভব হয়েছে। বাংলাদেশের মতো সারা বিশ্বের ব্যাংকাররা মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে। ফলে ডলারের বিনিময় মূল্য বাড়ছে। তবে অল্প সময়ের মধ্যে এই অসামঞ্জস্যতা দূর হবে। দেশে আর্থিক খাতে সুশাসন ও দক্ষতা বাড়িয়ে মূল্যস্ফীতির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় কাজ চলছে। রবিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেলে দুই দিনব্যপী আয়োজিত ইন্টারন্যাশনাল একাউন্টিং কনফারেন্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদার এসব কথা বলেন।

আন্তর্জাতিক এই কনফারেন্সের আয়োজন করে বাংলাদেশ একাউন্টিং অ্যাসোসিয়েশন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক (সিএজি) মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্রের মেমসিস বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জবিহওল্লাহ রেজাই, ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যাপক ড. হামিদ উল্লাহ ভূইয়া, আইসিএবির সভাপতি মো. মনিরুজ্জামান এফসিএ, আইসিএমএবি সভাপতি মো. আবদুর রহমান খান, বাংলাদেশ একাউন্টিং অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ড. এম হারুনুর রশিদ, ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ প্রমুখ।

ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ বলেন, করোনা এবং ২০২২ সালে রাশিয়া-ইউক্রেইন যুদ্ধের কারণে বৈশ্বিক রাজনৈতিক প্রভাবে বাংলাদেশেও বৈদেশিক বাণিজ্য চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়। একই সঙ্গে প্রবাসী আয় ও রপ্তানি আয় কমে যাওয়ায় বাংলাদেশের অর্থনীতিও চ্যালেঞ্জের মধ্যে পড়ে। অপ্রয়োজনীয় আমদানি হ্রাস, সঠিক মূল্যে পণ্য আমদানি, রেমিট্যান্স প্রবাহ বৃদ্ধি, অর্থ পাচার রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করায় আর্থিক খাত ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে। বর্তমানে আমাদের যে রিজার্ভ রয়েছে, তা দিয়ে কমপক্ষে ৪ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব, যা সম্ভব হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের বলিষ্ঠ পদক্ষেপের জন্য। আশা করি, ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ব্যাংক দেশের আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা রক্ষায় আরো শক্ত ভূমিকা পালন করবে। 

সম্মেলনে বিভিন্ন টেকনিক্যাল সেশনে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটির ডিন অধ্যাপক মো. মহিউদ্দিন খান, ইন্ডিয়ান একাউন্টিং অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি প্রফেসর ড. ভবতোষ ব্যানার্জি, বিইউবিটির ডিন অধ্যাপক ড. সৈয়দ মাসুদ হোসেন, ইন্ডিয়ান নর্থবেঙ্গল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সমিরেন্দ্রনাথ ধর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একউন্টিং বিভাগের অধ্যপক ড. মাহফুজুল্লাহ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. মনিরুজ্জামান।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ