মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

টাঙ্গাইলে ছাত্রীকে নিয়ে শিক্ষিকা উধাও 

টাঙ্গাইলে ছাত্রীকে নিয়ে শিক্ষিকা উধাও 

সংগৃহীত

টাঙ্গাইলে ছাত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে খাদিজা খাতুন নামে এক শিক্ষিকার বিরুদ্ধে। ছাত্রী-শিক্ষিকার নিখোঁজের এ ঘটনায় এলাকায় নানারকম আলোচনা-সমালোচনার জন্ম হয়েছে।

টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার বেরিবাইদ ইউনিয়নের ধামালিয়া গ্রামে ঘটেছে এমন ঘটনা। গত রোববার (২৯ এপ্রিল) ছাত্রীর নিজ বাড়ি মাগন্তিনগর চৌরাস্তা থেকে শিক্ষিকা খাজিদা খাতুন ওই ছাত্রীকে নিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান বলে অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে ধোঁয়াশায় ছাত্রীর মা-বাবাও। তাই তারা পুলিশের কাছে বিষয়টি জানিয়েছেন। তবে ছাত্রী-শিক্ষিকার উধাও হওয়ার নেপথ্যে কি সেটি নিয়ে রয়েছে মতপার্থক্য। যদিও ওই শিক্ষিকার বাবা বলছেন, তাদের খুঁজে পাওয়া গেলেই রহস্যের উদঘাটন করা যাবে।

জানা যায়, খাদিজা খাতুন ওই গ্রামের দারুল উম্মুল কুরা মহিলা মাদরাসার আরবি শিক্ষিকা ছিলেন। ওই ছাত্রীও পড়তেন ওই মাদরাসাতেই। তবে নানা কারণে বেশ কিছু দিন আগেই শিক্ষিকা খাদিজাকে মাদরাসা থেকে বের করে দেওয়া হয়।

ছাত্রীর মা-বাবার দাবি, শিক্ষিকা খাদিজা তাদের মেয়ের সঙ্গে অতিরিক্ত যোগাযোগ করতেন। তবে তারা যে এভাবে নিখোঁজ হবে তা তারা চিন্তাও করেননি। এরই মধ্যে থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। দ্রুত তারা তাদের মেয়েকে ফেরত চান।

এ বিষয়ে শিক্ষিকার বাবা বলেন, ‘আমার মেয়ে ও ওই ছাত্রীকে খোঁজাখুঁজি করা হচ্ছে। আসলে কি ঘটনা ঘটেছে তা এখনও জানা যায়নি। তবে তাদের দুজনকে পাওয়া গেলেই সব রহস্য বের হবে।’

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বেরিবাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জুলহাস উদ্দিন বলেন, ‘সবকিছুর খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। থানায় অভিযোগও দেওয়া হয়েছে। তাদের বের করার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। শিক্ষিকা খাদিজাকে একাধিকবার বিয়ে দেওয়া হয়েছে কিন্তু স্বামীর সংসার করেনি এবং পূর্বেও ছাত্রী নিয়ে উধাও হওয়ার ঘটনা রয়েছে।’

সূত্র: Rtv News