মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

খড় কাটা মেশিন চালু করতেই নিথর ৯ মাসের অ*ন্তঃস*ত্ত্বা রুমি

খড় কাটা মেশিন চালু করতেই নিথর ৯ মাসের অ*ন্তঃস*ত্ত্বা রুমি

সংগৃহীত

আগামী ১৮ এপ্রিল ডেলিভারির তারিখ ছিল। পরিবারের সদস্যরা বুকভরা আশা নিয়ে অধীর অপেক্ষায় ছিলেন নতুন অতিথির জন্য। কিন্তু নিয়তির নির্মম পরিহাস, বিদ্যুৎস্পৃষ্টে চিরতরে চলে গেলেন মা রুমি খাতুন। পৃথিবীর আলো দেখার ভাগ্য হলো না অনাগত শিশুর। মর্মান্তিক এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে যশোরের চৌগাছা উপজেলার ১১ নম্বর সুখপুকুরিয়া ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে। মৃত রুমি খাতুন ওই ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের মো. স্বপনের স্ত্রী। 

জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যায় খড় কাটা মেশিন চালু করার জন্য বিদ্যুতের সংযোগ লাইন দিতে যান রুমি। সংযোগ লাইনটি দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তিনি মাটিতে পড়ে যান। পরিবারের লোকজন দ্রুত তাকে উদ্ধার করে চৌগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

  মৃতের এক আত্মীয় জানান, নিহত রুমির পাঁচ বছরের একটি কন্যাসন্তান আছে। দ্বিতীয় সন্তানটি ডেলিভারির তারিখ ছিল আগামী ১৮ এপ্রিল। পেটের সন্তানটিও মেয়ে ছিল। পরিবারের লোকজন তারপরও খুশি ছিলেন। কিন্তু এমন মৃত্যু মেনে নেয়া যায় না। পাঁচ বছরের সন্তানটিও মা হারা হয়ে গেল।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চৌগাছা থানার ওসি ইকবাল বাহার চৌধুরী। 

তিনি বলেন, মেয়েটি ৯ মাসের প্রেগন্যান্ট ছিলেন। এই মাসেই ডেলিভারির ডেট ছিল বলে জেনেছি। কিন্তু বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যু হয়েছে। কোনো অভিযোগ না থাকায় মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ