• শনিবার   ১৯ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৫ ১৪২৮

  • || ০৯ জ্বিলকদ ১৪৪২

শাহজাদপুরে গ্রামবাসীর হাতে ভুয়া পশু ডাক্তার আটক

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২১  

সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের পার জামিরতা গ্রামে গতকাল দুপুরে ভুয়া পশু ডাক্তারকে আটক করে গ্রামবাসী। পরে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে পশু ডাক্তারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের জেল দেয় শাহজাদপুরের সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মাসুদ হোসেন।

প্রতারক পশু ডাক্তার সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়ার বেখুয়া গ্রামে মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে আতাউর রহমান (৫৭)।

উপজেলা প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের পার জামিরতা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে আলাল হোসেনের বাড়িতে গিয়ে অভিযুক্ত আতাউর রহমান নিজেকে গরুর ডাক্তার পরিচয় দিয়ে জানায় আপনার খামারের গরুর জন্য আপনার নামে ব্র্যাক থেকে ৯ হাজার টাকার ঔষধ বরদ্দ হয়েছে। তিনি আলালকে বলেন এখন যদি নেন তাহলে ১৭শো টাকায় নিতে হবে আর যদি পরে নেন তাহলে সেটা ৯ হাজার টাকায় কিনতে হবে।

তখন আলাল রাজি হলে ভুয়া ডাক্তার তার গরুকে ইন্জেকশনের মাধ্যমে ঔষধ প্রয়োগ করতে থাকে। ডাক্তারের ইনজেকশন দেওয়ার প্রক্রিয়া সন্দেহজন মনে হয় আলালের। পরে সে উপজেলা পশু হাসপাতালের পোরজনা ইউনিয়নের কর্মকর্তাকে মোবাইলে কল দিলে তিনি ঘটনাস্থলে আসেন।

যাচাই বাছাই শেষে তিনি উপজেলা ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ মীর কাওছার হোসেনকে বিষয়টি অবহিত করেন। পরে ঘটনাস্থলে ডাঃ মীর কাওছার হোসেন উপস্থিত হন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোঃ শামসুজ্জোহাকে অবহিত করেন।

পরে ঘটনাস্থলে শাহজাদপুরের সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মাসুদ হোসেন থানা পুলিশের একটি দল নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। অভিযোগের বিষয়টি তৎক্ষনাত তদন্ত করে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করলে আরো বেশ কয়েকজন অভিযুক্ত আতাউর রহমানের প্রতারণার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ দেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ অনুযায়ী অভিযুক্ত ভুয়া গরুর ডাক্তারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের জেল দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ মীর কাওছার হোসেন বলেন, গ্রামে গজিয়ে উঠেছে অসংখ্য ভুয়া পশু ডাক্তার। যাদের এবিষয়ে নুন্যতম কোন অভিজ্ঞতা বা প্রাতিষ্ঠানিক সনদ নেই। এরা গ্রামে ঘুরেঘুরে পশু মালিকদের বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা কথা বলে চিকিৎসা সেবা দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়। গ্রামের লোকেরা সহজ সরল হওয়ায় তাদের মিথ্যা কথার জালে বন্দী হয়ে তাদের অসুস্থ পশুকে চিকিৎসা করায়। এবিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পশু মালিক অভিযোগ করলে ঐসমস্ত পশু ডাক্তারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ