রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

মেসির ন্যাপকিন পেপারের দাম সাড়ে ১১ কোটি টাকা!

মেসির ন্যাপকিন পেপারের দাম সাড়ে ১১ কোটি টাকা!

সংগৃহীত

সেই ২০০০ সালে ১৩ বছর বয়সী লিওনেল মেসিকে বার্সার ডেরায় ভেড়াতে কি কাণ্ডটাই না করেছিল সে সময়ের ক্লাব কর্তারা। মেসিতে মুগ্ধ সে সময়ের বার্সা কর্তারা সে বছরের ১৪ ডিসেম্বর বার্সেলোনা টেনিস ক্লাবে মেসির সঙ্গে চুক্তি করেছিলেন, আর সে চুক্তিটি হয়েছিল একটি ন্যাপকিন পেপারে।

এ গল্প আপনারা অনেকেই জানেন। ১৩ বছর বয়সী মেসির লুকায়িত ফুটবল মেধাকে ঠিকই দেখে ফেলেছিলেন সে সময়ের বার্সা কর্তারা। তাকে যাতে অন্য কোনো ক্লাব নিতে না পারে, সে জন্য তাড়াহুড়ো করে একটি ন্যাপকিন পেপারের ওপর সেই চুক্তি করা হয়েছিল।

গত ফেব্রুয়ারিতেই ঘোষণা হয়েছিল, ঐতিহাসিক সেই ন্যাপকিন পেপার মার্চে নিলামে তুলবে ব্রিটিশ নিলাম প্রতিষ্ঠান বোনহামস। চলতি বছর মার্চে বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছিল, নিলামে ন্যাপকিন পেপারের দাম উঠতে পারে ৬ লাখ ৩৫ হাজার ডলার পর্যন্ত। বাস্তবে সে দামকেও ছাড়িয়ে গেল।

বোনহামস জানিয়েছে, ৩ লাখ ডলার ভিত্তিমূল্যের ন্যাপকিন পেপারটি নিলামে ৯ লাখ ৬৫ হাজার ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১১ কোটি ২৯ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

মেসির কিংবদন্তি হয়ে ওঠার যাত্রা শুরু সেই ক্যাম্প ন্যু থেকেই। ২০০০ সালের ১৪ ডিসেম্বর মেসির সঙ্গে করা সে চুক্তির আনুষ্ঠানিকতায় উপস্থিত ছিলেন মিনগেলা, হোরাশিও আর বার্সার ক্রীড়া পরিচালক কার্লোস রেক্সাস। মেসির নাম প্রথম সুপারিশ করেছিলেন আর্জেন্টাইন এজেন্ট হোরাশিও গ্যাগিওলি।

সূত্র: Rtv News

সর্বশেষ: