সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

অধিনায়কত্ব নেওয়ার পর বাবরের সঙ্গে কী কথা হয়েছিল শান মাসুদের

অধিনায়কত্ব নেওয়ার পর বাবরের সঙ্গে কী কথা হয়েছিল শান মাসুদের

সংগৃহীত

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের নবনিযুক্ত টেস্ট অধিনায়ক শান মাসুদ সাবেক অধিনায়ক বাবর আজমের সাথে তার কথোপকথনের (চ্যাট) বিষয়টি প্রকাশ করে দিয়েছেন। চলতি মাসে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু হওয়ার আগে দলের ভবিষ্যত নিয়ে তারা কথা বলেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

ক্রিকেট পাকিস্তানের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে মাসুদ বাবরের সাথে তার কথোপকথনের বিস্তারিত প্রকাশ করেছেন। যেখানে তারা দলের মধ্যে নেতৃত্বের সংস্কৃতি গড়ে তোলার গুরুত্বের ওপর জোর দিয়েছেন।

শান মাসুদ বলেন, ‘তার (বাবর আজম) সাথে আমার একটি কথোপকথন হয়েছে এবং এটি ছিল দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার বিষয়- অর্থাৎ কীভাবে এটিকে এগিয়ে নেওয়া যায়, বাবরের নিজের ভূমিকা এবং আমি মনে করি, আপনি ভবিষ্যতে যা দেখতে পাবেন তা হলো তিনি (বাবর) এই দলে থাকবেন। একজন নেতা হিসেবে এবং লক্ষ্য হলো- এমন একটি সংস্কৃতি গড়ে তোলা যেখানে অনেক নেতা আছে, শুধু একজন অধিনায়কই সবকিছু করছেন না।’

৩৪ বছর বয়সি এই ক্রিকেটার টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে তার নিয়োগের বিষয়েও কথা বলেছেন। 
‘যখন ঘটনাটি ঘটে, আমি ওয়ান-ডে কাপে খেলছিলাম। আমি তখন ইসলামাবাদে ছিলাম এবং আমার মনে হয় সেদিন সকালে আমি পিসিবি (পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড) থেকে একটি কল পেয়েছি, বলেছিল যে আমার আসা উচিত। দুপুরের মধ্যে লাহোরে পৌঁছান। চেয়ারম্যান (পিসিবি) জাকা আশরাফ আমার সাথে দেখা করতে চেয়েছিলেন। এটি খুব সংক্ষিপ্ত নোটিশ ছিল, কিন্তু আমি একদিনের জন্য গিয়েছিলাম এবং তার পর জাতীয় ওয়ান-ডে কাপের সেমিফাইনালে খেলতে ফিরে এসেছি। সুতরাং এটি ছিল খুব তাৎক্ষণিক ঘটনা,’ বলেন মাসুদ।

প্রসঙ্গত গত ১৫ নভেম্বর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান জাকা আশরাফের সাথে বৈঠকের পর সব ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ান বাবর আজম।

জাতীয় দলের নেতৃত্ব থেকে বাবরের সরে দাঁড়ানোর পর পিসিবি শান মাসুদকে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের (পুরুষ) টেস্ট অধিনায়ক নিযুক্ত করে। একই সঙ্গে শাহীন শাহ আফ্রিদিকে টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

এর আগে গত ৫ অক্টোবর থেকে ভারতে শুরু হয় এবারের আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। কিন্তু ব্যাপক প্রত্যাশা সত্ত্বেও এই টুর্নামেন্টে উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করতে পারেনি পাকিস্তান দল। এ নিয়ে নানা সমালোচনার মুখে নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ান বাবর।

সূত্র: যুগান্তর