রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১

রায়গঞ্জে প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত মৃৎশিল্পীরা

রায়গঞ্জে প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত মৃৎশিল্পীরা

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে ৯টি ইউনিয়নের এবছরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হচ্ছে আগামী ২০ অক্টোবর। আর এই পূজাকে সামনে রেখে এ উপজেলা মোট ৮৭টি প্রতিমা তৈরি কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎশিল্পীরা। দুর্গাপূজা বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় উৎসব। তাই মা দুর্গাকে বরণ করে নেয়ার জন্য এখন থেকেই দিন গোনার পালা শুরু করেছেন সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা।

উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় এবছর মোট ৮৭টি পূজা মন্ডপে দুর্গাপূজা উদযাপিত হবে। যতদিন ঘনিয়ে আসছে ততই মানুষের মাঝে দেখা দিচ্ছে পূজার প্রস্তুতি। রায়গঞ্জ পৌরসভার ধানগড়া পালপাড়ায় গ্রামের মৃত সিদ্ধিশ^র পালের ছেলে প্রতিমা শিল্পী দসরত পাল ও রণজিত পাল বলেন, বংশ পরম্পরায় এই কাজ করে আসছি।

প্রতিমা তৈরিতে বেশি খরচ হচ্ছে। কারণ প্রয়োজনীয় উপকরণের দাম ও কারিগরের মজুরিসহ সব কিছুর দাম বেড়ে গেছে। তাই খরচ বেশি হচ্ছে। প্রতিমা বিক্রি করে আমাদের খুব বেশি পোষাবে না। তারপর ও প্রতিমা তৈরি করছি।

এ ব্যাপারে রায়গঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি চন্দন কুমার সরকার জানান, হিন্দু ধর্মাবলম্বীর সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজা। আমরা প্রতিটি পূজা কমিটির সভাপতি ও সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করছি। এবছরে পূজা হবে মোট ৮৭টি।

এ বিষয়ে রায়গঞ্জ থানার ওসি আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, পূজা উদযাপন পরিষদের সকল সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের সাথে একটি আলোচনা সভা করবো। প্রতিটি পূজা মন্ডপের সার্বিক নিরাপত্তায় পুলিশ নিয়োজিত থাকবে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৃপ্তি কণা মন্ডল জানান, হিন্দু ধর্মাবলম্বীর সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজা আর এই পূজাকে ঘিরে পূজা মন্ডপগুলোতে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আলোচনা সভা করা হবে এবং থানা পুলিশ, আনসার, গ্রাম পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সার্বিকভাবে দায়িত্ব পালন করবে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: