• বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৪

উদ্বোধনের অপেক্ষায় উল্লাপাড়ার আধুনিক রেলস্টেশন

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৭ জুন ২০২২  

বহু প্রতিক্ষীত ও আন্দোলনের ফসল সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া আধুনিক রেলস্টেশন এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। ইতিমধ্যে দৃষ্টিনন্দন স্টেশনটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।খুব শীঘ্রই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। সেই সাথে স্বপ্নপূরণ হবে উল্লাপাড়া তথা অত্র এলাকার রেলযাত্রীদের। সীমানা প্রাচীর, সুবিশাল গাড়ি পার্কিং ও ফুটপাতের কাজ শেষ হয়েছে বেশ কিছুদিন আগেই।

প্রস্তুত হয়েছে নতুন রেললাইনের আইল্যান্ড লাইন, মুল প্লাটফর্মের রিমডেলিংয়ের কাজ, দৃষ্টিনন্দিত ও ঝলমলে হয়ে উঠেছে ইলেকট্রিক লাইট ও ফ্যানে সুসজ্জিত রেলস্টেশনটি।

নবনির্মিত উল্লাপাড়ার আধুনিক রেলস্টেশনটি উদ্বোধন উপলক্ষে এলাকায় এখন উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। প্রতিদিনই উৎসুক জনতা দেখতে আসছে আলোকিত ও পরিচ্ছন্ন রেলস্টেশনটি।

ব্যাংক কর্মকর্তা রেলযাত্রী জুয়েল রানা জানান, আগে দুর্ভোগের অপর নাম ছিল উল্লাপাড়া রেলওয়ে স্টেশন।

এ জন্য উল্লাপাড়ায় একটি আধুনিক রেলস্টেশন নির্মাণের দাবি ছিল আমজনতার। বর্তমান রেল সচিব সেলিম রেজা মহোদয়ের গ্রামের বাড়ী এই পথে হওয়ায় তিনি মাঝে মধ্যেই এই পথ দিয়ে যাতায়াত করতেন।

স্টেশনটির দুরবস্থা দেখে তিনি এই আধুনিক রেলস্টেশন নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করেন। উল্লাপাড়া স্টেশন মাষ্টার গাজী গোলাম ফেরদৌস জানান, মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ে বেশকিছু আধুনিক রেলস্টেশন স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহন করেন।

উল্লাপাড়া তারমধ্যে একটি। রেলযাত্রীদের নির্বিঘ্নে যাতায়াত নিশ্চিত করতে সব ধরনের আধুনিক সুযোগ সুবিধা থাকছে এই রেলস্টেশনে।সকল কাজ শেষ করে প্রধানমন্ত্রীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে নির্মাণাধীন রেলস্টেশনটি।

নির্মাণ প্রতিষ্ঠান মোল্লা কনস্টাকশনের ঠিকাদার শফিউল আলম হ্যাভেন জানান, বাংলাদেশ রেল মন্ত্রণালয়ের ৪ কোটি ১৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ১১ নভেম্বর-২০২১ খ্রীস্টাব্দে উল্লাপাড়ায় আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন রেলস্টেশন নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন মাননীয় রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন এম,পি ও সচিব সেলিম রেজা।

ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নির্মাণ কাজ শেষ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে রেলস্টেশনটি। উদ্বোধন হলে একসঙ্গে ৪টি ট্রেন প্রবেশ ও বের হতে পারবে এবং প্রতিদিন প্রায় ৯ থেকে ১০ হাজার যাত্রী ওঠানামা করতে পারবে এই স্টেশন দিয়ে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ