বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০

উল্লাপাড়ায় স্কুলছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ

উল্লাপাড়ায় স্কুলছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় আফসানা খাতুন নামে এক স্কুল ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষনের  অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকের বিরুদ্বে। পরে ওই স্কুল ছাত্রী অভিমানে বিষ পান করে আতœহত্যা করেছে। বুধবার সকালে উপজেলার শিমলা মোড়দহ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে ওই গ্রামের আলতাফ হোসেন তালুকদার মেয়ে ও স্থানীয় বিনায়েকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেনীর ছাত্রী।

জানা যায়,আফসানার স্কুল সহপাঠি প্রতিবেশি আমিরুল ইসলাম বারুর ছেলে আরিফুল ইসলামের সাথে প্রায় ৬ মাস আগে প্রেমের সর্স্পক গড়ে ওঠে। সর্স্পকের এক পর্যায়ে  মঙ্গলবার রাতে আফসানাকে আরিফুল তার বাড়িতে ডেকে নেয়। এ সময় তাকে ফুসলিয়ে ঘরে আটকে ধর্ষন করা করা হয় বলে তার বাবা আলতাফ হোসেন অভিযোগ করেন। পরে আফসানা আরিফুলের বাড়ি ছেড়ে যেতে না চাইলে তাকে বেদম মারপিট করে পরিবারের সহযোগীতায় জোড়পূর্বক বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়।

পরে সে বাড়ি ফিরে কিটনাশক পান করে আতœহত্যার চেষ্টা চালায়। দ্রুত তাকে রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়। এখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে বুধবার সকালে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফাড করা হয়। সেখানে নেয়ার পথিমধ্যেই আফসানা মারা যায়। বুধবার উল্লাপাড়া মডেল থানা পুলিশ আফসানার বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্বার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় আফসানার বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।  ঘটনার পর থেকে ধর্ষক আরিফুলের বাড়ির সবাই পলাতক রয়েছে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

শিরোনাম:

বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় সিরাজগঞ্জে স্থাপন হচ্ছে ইটিপি প্ল্যান্ট
চৌহালীতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
কাজীপুর সরকারি বঙ্গবন্ধু ডিগ্রী কলেজে বইপড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
তরুণ-যুবক-শ্রমিকরাই গড়ে তুলেছিল সিরাজগঞ্জের ভাষা আন্দোলন
রক্তঝরা অমর একুশে আজ
শেখ হাসিনাকে নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন
জার্মানি সফর নিয়ে শুক্রবার সাংবাদিকদের ব্রিফ করবেন প্রধানমন্ত্রী
বাংলাদেশ ও ঘানা ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে সম্মত
মুক্তিযুদ্ধে একুশের অবিনাশী চেতনা সাহস জুগিয়েছে : রাষ্ট্রপতি
শহীদ দিবসে জাতীয় পতাকা সঠিক নিয়মে উত্তোলনের নির্দেশ
আমদানির খবরে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম
ভাষা শহীদদের প্রতি আওয়ামী লীগের বিনম্র শ্রদ্ধা