শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

গণতন্ত্র সূচকে দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ

গণতন্ত্র সূচকে দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ

গণতন্ত্র সূচকে দুই ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ। ফলে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ৭৩তম। সূচকে ১০-এর মধ্যে বাংলাদেশের স্কোর ৫ দশমিক ৯৯। বিশ্বের ১৬৭টি দেশ ও অঞ্চল নিয়ে তৈরি করা হয়েছে এবারের সূচক। বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) ‘গণতন্ত্র সূচক ২০২২’ প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্যের লন্ডনভিত্তিক দি ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (ইআইইউ)।

১৬৭টি দেশ ও অঞ্চল নিয়ে এবারের সূচক তৈরি করেছে ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট। সূচকে ১০-এর মধ্যে বাংলাদেশের স্কোর ৫ দশমিক ৯৯। ২০২১ সালের সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৭৫তম। স্কোর ছিল ৫ দশমিক ৯৯। ২০২০ সালের সূচকে একই স্কোর নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৭৬তম।

সব সূচক মিলিয়ে কোনো দেশের গড় স্কোর ৮-এর বেশি হলে সেই দেশে পূর্ণ গণতন্ত্র রয়েছে বলে বিবেচনা করা হয়েছে প্রতিবেদনে। আর স্কোর ৬ থেকে ৮-এর মধ্যে হলে সেখানে ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র, ৪ থেকে ৬-এর মধ্যে হলে মিশ্র শাসন এবং ৪-এর নিচে হলে সে দেশে স্বৈরশাসন চলছে বলে ধরা হয়।

সূচকে দেশ ও অঞ্চলগুলোকে চারটি বিভাগে ভাগ করা হয়েছে। পূর্ণ গণতন্ত্র, ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র, হাইব্রিড শাসনব্যবস্থা ও কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থা। এবারের সূচকে পূর্ণ গণতন্ত্র বিভাগে রয়েছে ২৪টি দেশ। ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র বিভাগে ৪৮টি দেশ। হাইব্রিড শাসনব্যবস্থায় ৩৬টি ও কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থায় রয়েছে ৫৯টি দেশ। এ বিভাগে সবার ওপরে বাংলাদেশ। ৪ দশমিক শূন্য তিন স্কোর নিয়ে এ বিভাগে সবার নিচে রয়েছে মৌরিতানিয়া। এ বিভাগের অন্য দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে ভুটান (৮৪তম), ইউক্রেন (৮৭তম), উগান্ডা (৯৯তম), নেপাল (১০১তম) ও পাকিস্তান (১০৭তম)।

অপরদিকে এবারের সূচকে ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র বিভাগে থাকা দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, মালয়েশিয়া, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কা ও সিঙ্গাপুর। দেশগুলোর অবস্থান যথাক্রমে ৩০তম, ৪০তম, ৪৬তম, ৫৪তম, ৬০তম, ৭০তম।

তালিকায় শীর্ষ পাঁচটি দেশ হলো নরওয়ে (স্কোর ৯.৮১ ), নিউ জিল্যান্ড (৯.৬১), আইসল্যান্ড (৯.৫২), সুইডেন (৯.৩৯) ও ফিনল্যান্ড (৯.২৯)। এই দেশগুলোর নাগরিকরা সবচেয়ে বেশি গণতান্ত্রিক সুবিধা ভোগ করে।

সূচকে পাঁচটি মূল বিষয়ের আলোকে বিশ্বব্যাপী দেশগুলোর গণতন্ত্রের অবস্থা মূল্যায়ন করা হয়েছে। বিষয়গুলো হলো নির্বাচনী প্রক্রিয়া ও বহুত্ববাদ, সরকারের কার্যকারিতা, রাজনৈতিক অংশগ্রহণ, রাজনৈতিক সংস্কৃতি ও নাগরিক স্বাধীনতা।

সূচকে দেশ ও অঞ্চলগুলোকে চারটি বিভাগে ভাগ করা হয়েছে। পূর্ণ গণতন্ত্র, ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র, হাইব্রিড শাসনব্যবস্থা ও কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থা। এবারের সূচকে পূর্ণ গণতন্ত্র বিভাগে রয়েছে ২৪টি দেশ। ত্রুটিপূর্ণ গণতন্ত্র বিভাগে ৪৮টি দেশ। হাইব্রিড শাসনব্যবস্থায় ৩৬টি দেশ। কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থায় ৫৯টি দেশ।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ