• মঙ্গলবার   ১৬ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ১ ১৪২৯

  • || ১৯ মুহররম ১৪৪৪

বিকট শব্দে বজ্রপাত, ছয় কৃষকসহ ৮ জনের মৃত্যু

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৩১ জুলাই ২০২২  

দেশের সাত জেলায় বজ্রপাতে ছয় কৃষকসহ আটজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে নীলফারীতে দুইজন কৃষক, চুয়াডাঙ্গায় এক কৃষক, বগুড়ায় এক কৃষক, নেত্রকোনায় এক কৃষক, চাঁপাইনবাবগঞ্জে এক কিশোর, সিরাজগঞ্জে এক গৃহবধূ ও লালমনিরহাটে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত এসব ঘটনা ঘটে।

নীলফামারী: সদর উপজেলায় বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। দুপুরে কচুকাটা ও চাঁদেরহাট এলাকায় পৃথক এ দুটি ঘটনা ঘটে। এ সময় আরো দুই কৃষক আহত হয়েছেন। তাদের নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মৃতরা হলেন- কচুকাটা ইউপির মাঝাপাড়া গ্রামের মোখছেদুল ইসলাম ও রামনগর ইউপির চাঁদেরহাট আর্দশপাড়া গ্রামের রেদোয়ানুল হক। তারা দুজনই পেশায় কৃষক। জমিতে হাল দেওয়ার সময় পাওয়ার ট্রলির দুই চালক আলম ও রশিদ আহত হয়।

স্থানীয়দের বরাতে নীলফামারী সদর থানার ওসি আব্দুর রউফ জানান, দুপুরে দিকে বৃষ্টি হচ্ছিল। পৃথক স্থানে তারা বৃষ্টিতে ভিজে জমিতে আমন চারা রোপণের জন্য জমিতে হাল ও সেচের জন্য নালা তৈরি করছিলেন। বৃষ্টির মধ্যেই সেখানে বজ্রপাত হয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুই কৃষকের মৃত্যু হয়।

চুয়াডাঙ্গা: জেলার দামুড়হুদা উপজেলায় বজ্রপাতে আলামিন হোসেন নামে এক কৃষক মারা গেছেন। দুপুরে মাঠে কৃষি কাজের সময় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আলামিন হোসেন উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউপির বুইচিতলা গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে। 

পুলিশ জানায়, দুপুরে গ্রামের একটি কৃষি জমিতে বৃষ্টি-বজ্রপাতের মধ্যে কাজ করছিলেন আলামিন। এ সময় আলামিনের মাথায় বজ্রপাত ঘটলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে মাঠের অন্য কৃষকরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

বগুড়া: জেলার শেরপুর উপজেলায় বজ্রপাতে ফিজার হোসেন নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার খামারকান্দি ইউপির ঘোরদৌড় গ্রামের মাঠে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কৃষক ফিজার হোসেন উপজেলার খানপুর ইউপির নলবাড়িয়া গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, বিকেলে বৃষ্টিপাত শুরু হয়। এরইমধ্যে মাঠে আমন ধান লাগানোর জন্য জমি প্রস্তুত করার কাজ করছিলেন তিনি। এ সময় বিকট শব্দে বজ্রপাত হয়। এতে কৃষক ফিজার মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তার শরীরের কিছু অংশ পুড়ে যায়। পরবর্তীতে এলাকার লোকজন এসে ওই কৃষককে দ্রুত উদ্ধার করে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। এ সময় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নেত্রকোনা: জেলায় বজ্রপাতে দুলাল মিয়া নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বিকেলে বারহাট্টা উপজেলার আসমা ইউপির আসমা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তিনি আসমা গ্রামের রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে। সন্ধ্যায় বারহাট্টা থানার ওসি মো. লুৎফুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: ফুটবল খেলার সময় বজ্রপাতে সাদ নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছেন। সন্ধ্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার রাজারামপুর হাসিনা গার্লস স্কুল মাঠে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত সাদ রাজরামপুরের মৌলভী পাড়া মহল্লার সেরাজুল ইসলামের ছেলে।

সিরাজগঞ্জ: জেলার তাড়াশে ওষুধ কিনে ফেরার পথে বজ্রপাতে জামিলা খাতুন নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। দুপুরে উপজেলার তালম ইউপির হাড়িসোনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জামিলা খাতুন একই গ্রামের খাজেম আলীর স্ত্রী। 

লালমনিরহাট: জেলার কালীগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে দুই মহিষসহ মোজা মিয়া নামে এক রাখালের মৃত্যু হয়েছে। বিকেলে উপজেলার ভোটমারী ইউপির শৌলমারী গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি ওই গ্রামের বাসিন্দা। কালীগঞ্জ থানার ওসি গোলাম রসুল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ