শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

সিরাজগঞ্জে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা

সিরাজগঞ্জে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা

সিরাজগঞ্জে বিভিন্ন ধর্মের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহনে “ধর্মীয় সম্প্রীতি সচেতনতামূলক দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা ২০২৩ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ( ২৩ মে,২০২৩) সকালে জেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতা মূলক প্রশিক্ষণ কর্মশালর শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশন সিরাজগঞ্জের উপ-পরিচালক ফারুক আহমেদ, অনুষ্ঠানের সভাপতি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক( সার্বিক) সিরাজগঞ্জ গনপতিরায় এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মাদ মাহবুবুর রহমান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও প্রশাসন অর্থ মোহাম্মদ হান্নান মিয়া, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ আব্দুস সামাদ তালুকদার, জেলা আওয়ামীলীগের সহ- সভাপতি এডভোকেট বিমল কুমার দাস, প্রমূখ।

দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার প্রধান অতিথি মীর মোহাম্মাদ মাহবুবুর রহমান প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশে তিনি তার বক্তব্য বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে বাংলাদেশ নামক এই দেশটি লাল সবুজের পতাকা ও নিজস্ব মানচিত্র পেয়েছেন। ইসলামিক ফাউণ্ডেশন প্রতিষ্ঠাতা করে ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ইসলাম একটি শান্তির ধর্ম। ইসলাম ধর্ম আমাদের সকল মুসলমানদের কে সম্মানিত করেছেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চেয়ে ছিলেন বাংলাদেশে জাতি বর্ণ নির্বে শেষে এক সাথে বসবাস করবে। মহান আল্লাহ পাকের দিক নিদের্শন গুলি ও নবী রাসূলের সূন্নত গুলি সঠিক ভাবে পালন করবে এই জন্য তিনি ইসলামিক ফাউণ্ডেশন তৈরী করে ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামিক ফাউণ্ডেশন তৈরী করে করে ছিলেন। আজকের এই ধর্মীয় সম্প্রীতিও সচেতনতামূলক দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মুসলিম ধর্মাবলম্বী,ও হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মাবলম্বী,ও খৃস্টান সম্প্রদয়ের র্ধর্মাবলম্বী ও সমাজের বিবেকবান সাংবাদিকগণ এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেছেন। প্রকৃত ধর্মের মর্মবাণী প্রায় একি তাই আমরা কখন কাউকে দুঃখ দেবোনা। যার যার ধর্ম সে সে সঠিক ভাবে পালন করবো। কাউকে কোন প্রকার ধর্মনিয়ে কাউকে আঘাত করবোনা। বাংলাদেশে ধর্মীয় দিক দিয়ে আমরা সবচেয়ে এগিয়ে।

উল্লেখ্য – ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতামূলক কর্মশালা দিনব্যাপ বিভিন্ন ধর্মের ধর্মাবলম্বীও মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও পুরহিত, সাংবাদিকদেরকে নিয়ে এই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ১০০ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করেন।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: