রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১

১৮-২০ বছর বয়সীরাও বন্দুক কিনতে পারবে: মার্কিন আদালত

১৮-২০ বছর বয়সীরাও বন্দুক কিনতে পারবে: মার্কিন আদালত

বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য দেশে বন্দুক হামলা যেন একটি স্বাভাবিক ঘটনা। প্রতিদিনই বন্দুক হামলার মতো ঘটনা বেড়েই চলছে। আর এই পরিস্থিতিতেই ১৮ থেকে ২০ বছর বয়সীদের বন্দুক কেনার অধিকার রয়েছে বলে রায় দিয়েছে মার্কিন একটি আদালত। শুক্রবার (১২ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২১ বছরের কম বয়সী ব্যক্তিদের কাছে লাইসেন্সপ্রাপ্ত ডিলারদের হ্যান্ডগান বিক্রি নিষিদ্ধ করা ফেডারেল আইনকে অসাংবিধানিক ঘোষণা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ডিস্ট্রিক্ট কোর্টের একজন বিচারক। তিনি বলেছেন, ১৮ বছরের বেশি বয়সী যে কারও হ্যান্ডগান বা বন্দুক কেনার সেই অধিকার থাকা উচিত।

ভার্জিনিয়ার ইস্টার্ন ডিস্ট্রিক্টের বিচারক রবার্ট পেইন এই রায় দিয়েছেন। মূলত ১৮ বছরের বেশি কিন্তু ২১ বছরের কম বয়সী চার ব্যক্তির দায়ের করা মামলায় এই রায় দিয়েছেন তিনি। ওই চারজন হ্যান্ডগান কিনতে চেয়েছিলেন, কিন্তু ব্যর্থ হওয়ার পর মামলা দায়ের করেন।

 

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল আইনে ২১ বছরের কম বয়সী ব্যক্তিদের কাছে লাইসেন্সপ্রাপ্ত বন্দুক ব্যবসায়ীদের হ্যান্ডগান বিক্রি করাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যদিও ২১ বছরের কম বয়সীদের পিতামাতারা তাদের সন্তানদের জন্য বন্দুক কিনতে পারেন। এছাড়া ব্যক্তিগত বিক্রয় বা বন্দুক প্রদর্শনী থেকে বন্দুক নিজেই কিনতে পারে ২১ বছরের কম বয়সী ব্যক্তিরা।

এছাড়া ২১ বছরের কম বয়সী আমেরিকানরা বর্তমানে ফেডারেল লাইসেন্সপ্রাপ্ত ডিলারের কাছ থেকে কোনও হ্যান্ডগান কিনতে পারে না। তারা রাইফেল বা শটগান কিনতে পারেন।

এএফপি বলছে, বুধবার দেওয়া নিজের মতামতে বিচারক রবার্ট পেইন সাম্প্রতিক সময়ে সুপ্রিম কোর্টের একটি সিদ্ধান্তের উদ্ধৃতি দিয়েছেন যা বন্দুক মালিকদের অধিকার আরো প্রসারিত করেছে। এছাড়া মার্কিন সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনীর উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘মানুষের অস্ত্র রাখার এবং বহন করার অধিকার লঙ্ঘন করা হবে না।’

 

তিনি বলেন, ‘আদালত দেখেছে যে, বন্দুক কেনার অধিকার সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনীর প্লেইন টেক্সটের মধ্যে পড়ে।’

পেইন উল্লেখ করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ভোট দেওয়ার বয়স ১৮ বছর এবং এটি সেনাবাহিনীতে তালিকাভুক্তির বয়সও। এছাড়া মদ্যপানের বয়স ২১ বছর এবং কংগ্রেস তামাক কেনার বয়স বাড়িয়ে ২১ বছর করেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

 

এদিকে বন্দুক সহিংসতা প্রতিরোধ সংস্থা এভরিটাউন ল বিচারক রবার্ট পেইনের এই রায়ের নিন্দা করেছে। এভরিটাউন ল’র সিনিয়র ডিরেক্টর জ্যানেট কার্টার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘শুধুমাত্র বন্দুকই মার্কিন শিশু এবং কিশোর-কিশোরীদের মৃত্যুর প্রধান কারণ নয়, গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, ১৮ থেকে ২০ বছর বয়সীরা ২১ বছর বা তার বেশি বয়সী প্রাপ্তবয়স্কদের তুলনায় তিনগুণ হারে বন্দুক হত্যা ঘটায়।’

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক হামলা নিয়মিত ঘটনায় পরিণত হয়েছে। ২০২৩ সালে এখন পর্যন্ত ১৯৫ জনের বেশি মানুষ দেশটিতে বন্দুক হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন। এমনকি উত্তর আমেরিকার এই দেশটিতে জনসংখ্যার চেয়েও আগ্নেয়াস্ত্রের সংখ্যা বেশি।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: