শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

ছয় গোলের ম্যাচে ড্র-তেই শেষ ম্যানসিটি-টটেনহ্যামের লড়াই

ছয় গোলের ম্যাচে ড্র-তেই শেষ ম্যানসিটি-টটেনহ্যামের লড়াই

সংগৃহীত

ম্যাচের শুরুর দিকেই গোল পেলেন আর্লিং হালান্ড। তাতে দলকে এগিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি একটা রেকর্ডও গড়েন তিনি। এই গোলের মাধ্যমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ৫০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন হালান্ড। মাত্র ৪৮ ম্যাচ খেলেই গোলের ফিফটি পেলেন তিনি। যা প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড।

তবে হালান্ডের রেকর্ডময় দিনে লিভারপুলের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। শনিবার (২৫ নভেম্বর) ঘরের মাঠে লিভারপুলের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে সিটি। শুরুতে হালান্ডের গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ৮০তম মিনিটে সমতা ফেরান লিভারপুলের ইংলিশ ডিফেন্ডার ট্রেন্ট অ‍্যালেকজান্ডার-আর্নল্ড।

পয়েন্ট ভাগাভাগির পর ১৩ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে সিটি। সমান ম্যাচে তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট পিছিয়ে দুইয়ে লিভারপুল। ম্যাচের শুরু থেকেই দাপট ছিল সিটির। জাতীয় দলের হয়ে চোট পাওয়ায় এই ম্যাচে অনিশ্চিত ছিলেন হালান্ড। তবে ম্যাচের আগেই ফিট হয়ে উঠেন। এই তারকা স্ট্রাইকারকে তাই শুরুর একাদশেই নামা পেপ গার্দিওলা। কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে খুব একটা সময় নেননি তিনি।

২৭ মিনিটে গোল করেন হলান্ড। লিভারপুল গোলকিপার আলিসন বল ধরে দ্রুত ক্লিয়ার করতে গিয়ে ভুলে সিটির সেন্টার ব্যাক নাথাম একেকে পাস দেন। লিভারপুলের বক্সের একটু সামনে দাঁড়িয়ে থাকা একে সুযোগ বুঝে পাস দেন হালান্ডকে। গোল করতে কোনো ভুল হয়নি তার। আধিপত্য বিস্তার করে খেললেও প্রথমার্ধে আর গোল পায়নি তারা।

দ্বিতীয়ার্ধে নেমে খানিকটা আক্রমণাত্মক খেলেছে লিভারপুল। পেয়েছে গোলের দেখাও। ৮০তম মিনিটে বাঁ প্রান্ত থেকে সাইট পরিবর্তন করে ডানে থেকে সিটির বক্সের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা মোহাম্মদ সালাহ পাস পান। পাশেই একটু ফাঁকায় দাঁড়ানো ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার আর্নল্ডকে পাস দেন মিসরীয় তারকা। ডান পায়ের দারুণ কোনাকুনি শটে গোল করেন এই ইংলিশ।

ম্যাচের বাকি অংশ আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে চললেও আর কেউই গোলের দেখা পায়নি। ফলে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে দুই দল।

সূত্র: DHAKA POST