রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১

গ্রীষ্মকালীন টমেটোর বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি!

গ্রীষ্মকালীন টমেটোর বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি!

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে আগাম টামেটো চাষ। গ্রীষ্মকালীন আগাম টমেটো চাষে ব্যাপক সফলতা পেয়েছেন এই এলাকার চাষিরা। বাজারে এখন টমেটোর দাম চড়া। টমেটোর ভালো ফলন ও বাজারে ব্যাপক চাহিদা থাকায় হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে। অনেকেই আগাম টমেটো চাষ করে সফল হচ্ছেন। কৃষি বিভাগের মতে, এই উপজেলার মাটি সবজির চাষের জন্য অত্যন্ত উর্বর। গ্রীষ্মকালীন টমেটোর বাম্পার ফলনের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে।

জানা যায়, এই উপজেলায় গ্রীষ্মকালীন বারি টমেটো-৮ চাষ হয়েছে। শীতকালীন টমেটো গ্রীষ্মকালে বাজারে বিক্রি হওয়ায় এর চাহিদা বেশ ভালো। যা স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে শেরপুর জেলাসহ পাশ্ববর্তী বিভিন্ন স্থানের পাইকাররা কিনে নিচ্ছেন। আর চাষিরা আর্থিকভাবে তারা লাভবান হওয়ায় চাষেও বাড়ছে আগ্রহ।

ঝিনাইগাতী উপজেলার উত্তর ধানশাইল গ্রামের কৃষক মো. মতিউর রহমান বলেন, কৃষি বিভাগের পরামর্শে ৩ শতাংশ জমিতে বারি টমেটো-৮ চাষ করি। জুন মাসের শেষের দিকে চারা রোপন করে এখন ফলন পাচ্ছি। ফলন ভালো হয়েছে। বাজারে টমেটোর দাম ভালো। আগামীতে ১ একর জমিতে টমেটোর চাষ করবো।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন দিলদার বলেন, আবহাওয়া অনুকূলে না থাকলেও গ্রীষ্মকালীন টমেটোর ভালো ফলন হয়েছে। অসময়ে এই টমেটোর বাজার দর ভালো থাকে আর ফলনও অনেক বেশি হয়। তাই গ্রীষ্মকালীন এই টমেটোর চাষ দিন দিন বাড়ছে। আমরা কৃষকদের গ্রীষ্মকালীন এই টমেটো চাষের জন্য উৎসাহিত করছি।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: