রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১

ইস্তিসকার নামাজে অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে বৃষ্টি চাইলেন ৫ শতাধিক মুসল্লি

ইস্তিসকার নামাজে অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে বৃষ্টি চাইলেন ৫ শতাধিক মুসল্লি

টানা কয়েক দিন ধরেই রাজবাড়ীতে বইছে তীব্র তাপপ্রবাহ। এক ফোঁটা বৃষ্টির আশায় প্রহর গুণছে পশুপাখিরাও। তবে বৃষ্টির দেখা নেই। উল্টো প্রতিদিন বেড়েই চলেছে তাপমাত্রা। এতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। অসহনীয় গরমে বৃষ্টির আশায় ইস্তিসকার নামাজ আদায় করেছেন ৫ শতাধিক মুসল্লি। 

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জেলার সদর উপজেলার পাচুঁরিয়া ইউনিয়নের ভান্ডারিয়া সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসার মাঠে বিশেষ এ নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এতে মাদরাসার শিক্ষক, ছাত্র ও এলাকাবাসীসহ পাঁচ শতাধিক মুসল্লি অংশগ্রহণ করেন। নামাজ শেষে অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে আল্লাহর কাছে বৃষ্টি বা পানির জন্য প্রার্থনা করে ৫ শতাধিক মুসল্লি। 

এই নামাজে ইমামতি করেন ভান্ডারিয়া সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবুল এরশাদ মোহাম্মদ সিরাজুম্মনির। 

অধ্যক্ষ আবুল এরশাদ মোহাম্মদ সিরাজুম্মনির বলেন, সারাদেশে তাপমাত্রা অসহনীয় পর্যায়ে বেড়ে চলছে। বিশেষ করে আমাদের দেশে ধারণাতীতভাবে বেড়েছে তাপমাত্রা। এই তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়াতে মানুষসহ পশুপাখির জন্য কষ্ট হচ্ছে। তাই বৃষ্টির জন্য আমরা বিশেষ নামাজ আদায় করেছি। আল্লাহ তায়ালার কাছে ক্ষমা চেয়েছি, ভিক্ষা চেয়েছি। তিনি যেন আমাদের সবার গুণাহ ক্ষমা করেন এবং বৃষ্টি দেন।

মাদরাসার শিক্ষার্থী মো. তানিমুর রহমান বলেন,তীব্র এই গরমে শুধু মানুষ না পশুপাখিরাও কষ্ট পাচ্ছে। তাই আমরা রাসূল (সা.) এর সুন্নত অনুযায়ী দুই রাকাত ইসতিসকার নামাজ আদায় করলাম। চোখের পানি ফেলে বৃষ্টির জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করলাম।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: