• মঙ্গলবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১৪ ১৪২৭

  • || ১২ সফর ১৪৪২

১০৩

মেসিদের খেলার ধরনই বদলে দেবেন বার্সার নতুন কোচ!

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০২০  

তিকিতাকা। স্প্যানিশ ফুটবলে মাঠে ফুল ফোটানোর একটি তত্ব। পেপ গার্দিওলা ছিলেন এই তত্বের জনক। তিকিতাকা আরও আগে আবিস্কার হলেও এই তত্ব সফলভাবে প্রয়োগ করেছিলেন গার্দিওলা। তার থেকে লুইস আরাগোন্স কিংবা ভিসেন্তে দেলবস্ক। শেষের দুই জনের হাত ধরে দুটি ইউরো এবং একটি বিশ্বকাপ জয় করেছিল স্পেন। স্রেফ তিকিতাকা দিয়েই প্রতিপক্ষকে বিভ্রান্ত করে বিশ্ব মাতিয়েছিল স্প্যানিশ ফুটবল।

কিন্তু জার্মানির পাওয়ার ফুটবলের কাছে তিকিতাকা এখন পর্যদুস্ত। ব্রাজিলের জোগো বোনিতো যেমন পর্যদুস্ত হয়েছিল, ঠিক তেমনি ১৫ আগস্ট রাতে পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের এস্টাডিও দা লুজে তিকিতাকার সমাধি রচনা করে দিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। ৮-২ গোলের বিশাল ব্যবধানে বার্সাকে বিধ্বস্ত করে।

পেপ গার্দিওলা বায়ার্ন মিউনিখেও ছিলেন। কিন্তু তিকিতাকা তিনি সঙ্গে করে নিয়ে যাননি। এখন আছেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যানসিটিতে। সেখানেও তিকিতাকার আমদানি ঘটেনি। মোটকথা, তিকিতাকা যেন বার্সার একক সম্পত্তি ছিল। গার্দিওলার পর টিটো ভিলানোভা (ক্যান্সারের কারণে প্রয়াত), টাটা মার্টিনো, লুইস এনরিকে, আর্নেস্তো ভালভার্দে কিংবা সদ্য বরখাস্ত হওয়া সিসে সেতিয়েন- সবাই চেষ্টা করেছিলেন বার্সার এই ফুটবল মেথডের সঙ্গে নিজেদের চিন্তা এবং দর্শনের মিল ঘটাতে। শেষ পর্যন্ত কেউ সফল হয়েছেন, কেই হতে পারেননি।

এবার যখন তিকিতাকার পুরো সমাধি রচিত হয়ে গেলো, তখন বার্সার ফুটবল দর্শন কি হবে? কোচ সিসে সেতিয়েনকে বিদায় করে বার্সা ঘরের ছেলে রোনাল্ড কোম্যানকে নিয়ে এসেছে নেদারল্যান্ডস থেকে। ডাচ জাতীয় ফুটবল দলের কোচ থেকে কোম্যান এখন বার্সার কোচ।

লিওনেল মেসিদের দায়িত্ব নেয়ার পর তার সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ দলটাকে, পূণর্গঠন করা, ঢেলে সাজানো। সেটা করতে গিয়েই সম্ভব, ন্যু ক্যাম্পের দলটির ফুটবল দর্শন পুরোপুরি বাতিল করে দিতে চলেছেন কোম্যান। ইয়োহান ক্রুয়েফের আবিস্কার করা টোটাল ফুটবলটাকেই ন্যু ক্যাম্পে ফিরিয়ে আনতে চান কোম্যান।

ইয়োহান ক্রুয়েফ শুধু ডাচ লিজেন্ডই ছিলেন না, ছিলেন বার্সারও। সে হিসেবে টোটাল ফুটবলের ছিঁটেফোটা বার্সায়ও আছে। তিকিতাকার মধ্যে টোটাল ফুটবলের ছোঁয়া লেগেছিল। সেটাকেই এখন আবার নতুন করে প্রস্ফুটিত করে তোলার দিকে মনযোগ দিতে চান বার্সার নতুন কোচ।

যাই করুন না কেন কোম্যান, সেটা যে মেসিকে কেন্দ্র করেই করতে হবে, সেটাও জানেন তিনি। বার্সেলোনার দায়িত্ব নিয়ে প্রথম দিনই নতুন কোচ বললেন, ‘জানি না বার্সেলোনায় থেকে যাওয়ার জন্য আমার নিজেকেই এবার মেসিকে বোঝাতে হবে কি না!’’ এটাও সঙ্গে বললেন, ‘মেসিই বিশ্বের সেরা। যে কোনো কোচ তাকে চাইবে। তার সঙ্গে কাজ করতে আমারও দারুণ লাগবে। তাছাড়া জেতার জন্য তো তাকেই প্রয়োচন। তাই মেসি থাকলেই খুশি হব।’

শুধু কথার কথা নয়। স্পেনের কাগজগুলিতে লেখা হচ্ছে, দায়িত্ব নেওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মেসির সঙ্গে দেখা করার কথা তার। আর্জেন্টাইন কিংবদন্তিও শুধু এই সাক্ষাতের জন্যই নাকি নিজের ছুটিতে যাওয়া পিছিয়ে দিয়েছেন।

দেখা করে মেসিকে কী বলবেন তা অবশ্য জানাননি কোম্যান। ‘যদি কী বলব আপনাদেরই বলে দিই, তাহলে ওর সঙ্গে দেখা করার তো দরকারই পড়বে না।’ একই সঙ্গে জানিয়ে দিলেন, মেসি যাবে না বার্সা থেকে। কোম্যান বলেন, ‘তার সঙ্গে তো এক বছরের চুক্তি আছেই। আশা করি এখানে এখনও অনেক বছর মেসি খেলবে।’

ক্রুয়েফের স্বপ্নের বার্সার সাবেক কিংবদন্তি কোম্যান কোচের দায়িত্ব নিয়ে পরিষ্কার জানালেন, ক্যাম্প ন্যুতে এ বার টোটাল ফুটবল মন্ত্র হতে যাচ্ছে। তার কথায়, ‘আমি নিজে ডাচ। চাই, বল সব সময় আমার ছেলেদের পায়ে থাকুক। পুরো নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ওরা এক-একটা ম্যাচ জিতুক।’

কিন্তু টোটাল ফুটবল প্রয়োগে মেসি ছাড়া আর কারা কোমানের ভাবনায় রয়েছে তা কিন্তু পরিষ্কার হয়নি। বার্সায় কোচ হয়ে প্রথম সংবাদ সম্মেলনে তাকে বলতে শোনা গেল, ‘কারও নাম বলব না। সেটা আমার পছন্দও নয়। আসল ব্যাপার, ক্লাবের জন্য কোনটা সব চেয়ে ভাল, সেটা বুঝে নিজের কাজটা করা। জানি এখানে অনেক অভিজ্ঞ ও প্রবীন ফুটবলার আছে। তাদের নিয়ে সংশয়ও আছে। কিন্তু তার মানে এই নয়, সিনিয়রদের অসম্মান করতে হবে। তা ছাড়া কারও বয়স ৩১, ৩২ বা ৩৩ হয়ে যাওয়া মানেই সে ফুরিয়ে গেছে এমন নয়। সব কিছুই নির্ভর করে তার মধ্যে এখনও কতটা ভাল খেলার তাগিদ অবশিষ্ট আছে, সেটা।’

পাশাপাশি, শুরুতেই কড়া বার্তাও দিয়ে রাখলেন তিনি। বলে দিলেন, ‘বার্সায় থাকতে চায় এমন ফুটবলারদের সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী। এখানে খেলতে যদি কারও ভাল না লাগে তা হলে তার চলে যাওয়াই উচিত।’

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর