• বৃহস্পতিবার   ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৭ ১৪২৯

  • || ১৮ রজব ১৪৪৪

শুভ জন্মদিন ব্যাটিং লিজেন্ড

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০১৯  

 

ছোট্ট স্কুল ক্রিকেট বালক থেকে আজ ক্রিকেট ইশ্বর। মাত্র ১৫ বছর বয়সে ক্রিকেটের বাইশ গজে আশা ছেলেটি অল্প দিনেই পুরো বিশ্বের নজর কাড়েন। তিনি আর কেউ নন রেকর্ডের বরপুত্র শচীন টেন্ডুলকার। ভারতীয় ক্রিকেট কিংবদন্তির আজ ৪৬তম জন্মদিন। শুভ জন্মদিন শচীন।

১৯৭৩-এর ২৪ এপ্রিল। এদিন এই গ্রহের বাসিন্দা হন শচীন টেন্ডুলকার। ১৯৭৩ সালের এই দিনে মুম্বাইয়ের এক নার্সিং হোমে জন্মেছিলেন ‘ক্রিকেটের বরপুত্র’।

১৯৮৯ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। তারপর শুধু নজরকাড়া পারফরম্যান্স দিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে চলা। গড়েছেন একের পর এক রেকর্ড। পৌঁছেছেন অনন্য উচ্চতায়।

ক্রিকেট বিশ্বে তিনিই একমাত্র ব্যাটসম্যান যিনি সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি করেছেন। এছাড়া ওয়ানডেতে প্রথম ব্যক্তিগত ২০০ রানের ইনিংসটিও তারই দখলেই।

২০১১ সালে ঘরের মাঠে জয় করেছিলেন বিশ্বকাপ শিরোপা।

মাত্র ২০ বছর বয়সেই টেস্টে করেছিলেন পাঁচ পাঁচটি সেঞ্চুরির রেকর্ড যা আজ কেউ টপকাতে পারেনি। ১৭ বছর বয়সে টেস্টে প্রথম সেঞ্চুরি করেন শচীন। টেস্ট ও ওডিআইতে সবচেয়ে বেশি রান ও সেঞ্চুরির মালিক টেন্ডুলকার ৩৬ বছর বয়সে ওডিআইতে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন।

২০০ টেস্টে ৩২৯ ইনিংস খেলে শচীন করেছেন ১৫৯২১ রান যাতে সর্বোচ্চ ইনিংস ২৪৮ রানের। ক্রিকেটের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত শুধু আলোই ছড়িয়ে গেছেন এই কিংবদন্তি খেলোয়াড়।

২০১২ সালে ওয়ানডে থেকে বিদায় নেন শচীন। ২৩ বছরের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে তিনি ৪৬৩ ম্যাচ খেলে ১৮৪২৬ রান করেছেন যার মধ্যে ৪৯টি সেঞ্চুরি রয়েছে আর সর্বোচ্চ ২০০ রানের ইনিংস।

একমাত্র আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন ২০০৬ সালে। তবে ঘরোয়া টি-টুয়েন্টি লিগে খেলছেন ২০১৩ পর্যন্ত।

সে বছরে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে শিরোপা জয়ের পরপরই টি-টোয়েন্টি থেকে বিদায় নেন।

একই বছরের অক্টোবর মাসে মুম্বাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০০তম টেস্ট খেলার মধ্য দিয়ে ২৪ বছরের ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ইতি টানেন ‘লিটল মাস্টার’।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ