• বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৪

পুতুল স্বামীর সন্তানের মা তিনি

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৭ জুন ২০২২  

পুতুল স্বামীর সন্তানের মা হয়েছেন বলে দাবি করেছেন মেইরিভোন রোচা মোরেস নামের এক নারী। নাচের কোনো সঙ্গী নেই — মাকে এমনটা অভিযোগ করার পর মার্সেলো নামের এই কাপড়ের পুতুলটি তৈরি করেছিলেন মেইরিভোনের মা। প্রথম দেখাতেই তার প্রেমে পড়ে গিয়েছিলেন। তারপর বিয়েও করেন। বিয়ের অনুষ্ঠানে ২৫০ জন অতিথিও ছিল। মেইরিভোনের ভাষায়, ‘আমার নাচের কোনো সঙ্গী ছিল না। প্রায়ই নাচের জন্য যেতাম কিন্তু সঙ্গী খুঁজে পেতাম না। তারপর সে আমার জীবনে আসে। সবকিছু পাল্টে যায়।’

বিয়ে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দিনটি আমার জন্য অসাধারণ ছিল। খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও আবেগময়। আমি যেমনটা চেয়েছিলাম সে ঠিক তেমন। তার সঙ্গে দাম্পত্য জীবন অসাধারণ কাটছে। সে আমার সঙ্গে ঝগড়া, তর্ক কিছুই করে না। আমাকে খুব ভালো বোঝে। মার্সেলো খুবই ভালো স্বামী। সে এমন একজন যাকে দেখে অন্য মেয়েরা হিংসে করবে।’

যদিও মার্সেলোর একটি বিষয়ে মেইরিভোনের অভিযোগ রয়েছে। সে নাকি খুব অলস। এজন্য কোনো কাজ করে না। তাই সংসারের আয়-রোজগার সব তাকেই করতে হয়। মেইরিভোন বলেন, ‘তার অনেক গুণের মধ্যে একটি দোষ হলো— সে খুব অলস। একদমই কাজ করে না।’

গত মে মাসের ২১ তারিখ মার্সেলো ও তার একটি পুতুল সন্তানের জন্ম হয়েছে বলে দাবি মেইরিভোনের। বাড়িতে চিকিৎসক, নার্স ও অনলাইন লাইভে প্রায় ২০০ জনের উপস্থিতিতে তিনি সন্তান জন্ম দিয়েছেন। তবে এজন্য মেইরিভোনের কোনো কষ্ট হয়নি বলে জানিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সন্তান জন্ম দেওয়ার বিষয়টি অনেকে ভুয়া বলে উল্লেখ করেছেন। এ বিষয়ে মেইরিভোন বলেছেন, ‘মানুষ যখন এটিকে ভুয়া বলেন তখন খুব কষ্ট হয়। আমার রাগ হয়। আমি সচ্চরিত্রের নারী। আমার মা-বাবা সব সময় আমাকে সৎ থাকার শিক্ষা দিয়েছেন। ব্যক্তি হিসেবে আমি সৎ থাকতে চাই। কোনো প্রতারণার আশ্রয় নিতে চাই না।’

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ