• বৃহস্পতিবার   ০৯ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৫ ১৪২৭

  • || ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪১

৭৭

যে চার কথা সঙ্গীকে ভুলেও বলবেন না

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৯ মার্চ ২০২০  

পরিবারে শান্তি বজায় রাখতে নারী-পুরুষ উভয়েরই সম্মিলিত চেষ্টায়। এককভাবে কেউই একটি সংসার এগিয়ে নিতে পারে না। তবে এক্ষেত্রে পুরুষের মধ্যে থাকতে হবে নারীদের কিছু বিষয় বোঝার ক্ষমতা।

সংসারে সুখ ও সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য দুজনের মধ্যেই ভালোবাসা, সহমর্মিতা, আন্তরিকতা এবং আত্মত্যাগ অনেক জরুরি। নইলে সংসারের শান্তি টিকিয়ে রাখা কঠিন হয়ে পড়ে। তবে সংসারের সুখ-শান্তি টিকিয়ে রাখতে কিছু ব্যাপারে স্বামীর দায়িত্ব কিছুটা বেশি। কেননা তার সামান্য একটি কথায় অনায়াসে ভেঙ্গে যেতে পারে কষ্টে গড়া সুখের সংসারটি।

তাই স্ত্রীর প্রতি আচার ব্যবহারে সংযম ও সহনশীলতার পরিচয় দিতে হবে। বিশেষ করে চারটি বিষয়ের দিকে সবসময় খেয়াল রাখতে হবে। যা কখনোই তাদের বলা ঠিক নয়। চলুন জেনে নেয়া যাক কোন চারটি কথা সঙ্গীকে ভুলেও বলবেন না-

তোমাকে বিয়ে করা বড় ভুল

একই ছাদের নিচে থাকলে সংসারে ছোট খাটো ঝগড়া হতেই পারে। এতে স্ত্রীর প্রতি বিরক্ত হওয়াটাও স্বাভাবিক। হতে পারে ঝগড়ার বিষয়টি বড়। তাই বলে ভুলেও যেন স্ত্রীকে বলতে যাবেন না, ‘তুমি একটা স্বার্থপর মেয়ে। তোমাকে বিয়ে করা আমার জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল!’ এ ধরনের কথা আপনার স্ত্রীকে অনেক বেশি কষ্ট দিয়ে থাকে। স্ত্রী যদি আপনার পছন্দমতো কাজ নাও করে এবং যদি সে সত্যিই স্বার্থপরের মতো আচরণ করেও থাকে, তবু তাকে এ কথা বলা যাবে না। ঝগড়ার সময় এ ধরনের কথাগুলোই দুজনের সম্পর্ক আরো তিক্ত করে তুলতে পারে।

তোমার চেয়ে আমার চাকরি গুরুত্বপূর্ণ

প্রতিটি স্ত্রী চায়, পৃথিবীতে স্বামীর কাছে সে যেন বেশি প্রিয় হয়। অন্য যে কোনো কিছুর চাইতে তার গুরুত্ব স্বামীর কাছে বেশি থাকে। কাজেই একে অপরকে সম্মান করুন। কখনো তাকে একথা বলে কষ্ট দিবেন না যে, ‘তোমার চেয়ে আমার চাকরি গুরুত্বপূর্ণ।’ আপনার সময় না থাকলে তাকে বুঝিয়ে বলুন। সে বুঝবে। কিন্তু এভাবে তাকে অসম্মান করা যাবে না।

তোমার মাকে পছন্দ করি না

শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখা প্রতিটি পুরুষেরই উচিত। হ্যাঁ, অনেককেই আপনি অপছন্দ করতে পারেন। তাই বলে রাগের মাথায় ‘আমি তোমার মাকে ঘৃণা করি’ বা ‘আমি তোমার বাবাকে ঘৃণা করি’- কিংবা ‘তোমার গোষ্ঠীর লোকজন খারাপ’ এ ধরনের কথা বলবেন না।

পছন্দ না হলে চলে যাও

এমন কিছু স্বামী আছেন যারা ঝগড়া হলেই স্ত্রীকে বাপের বাড়ির রাস্তা দেখিয়ে দেন। কিন্তু শিক্ষিত ও আত্মসম্মানবোধ সম্পন্ন নারীরা এ ধরনের কথা শুনেতে পছন্দ করেন না। তাই স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া লাগলেই তাকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার কথা বলা যাবে না।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর