• মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৯ ১৪২৭

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪১

৪৮

এক উপায়েই মিলবে ডায়াবেটিস থেকে চিরস্থায়ী মুক্তি

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

এখনকার সময়ে ডায়াবেটিস খুবই পরিচিত একটি রোগের নাম। যা যে কোনো বয়সেই হতে পারে। বংশগত বা ভুল খাদ্যাভ্যাস এর জন্য দায়ী। তবে এর থেকে মুক্ত থাকতে রয়েছে চিকিৎসাও। ডায়াবেটিস হলে চিকিৎসকরা নানা রকম পরামর্শের পাশাপাশি ইনসুলিন কিংবা ওষুধ সেবন করতে দেন।

কিন্তু জানেন কি, ভেষজ চিকিৎসায় ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পাবার রয়েছে দারুণ উপায়। করলা ডায়াবেটিস নিরাময়ে খুবই সহায়ক একটি সবজি। খেতে তেতো হলেও এই সবজিটি নিয়মিত খাওয়ার মাধ্যমে সহজেই ডায়াবেটিস সহনীয় মাত্রায় রাখা সম্ভব।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে করলা কেন খাবেন?

ডায়াবেটিসের মোক্ষম দাওয়াই হিসেবে করলার কথা বলছেন আধুনিক চিকিৎসকরা। কিন্তু কেন? গবেষণায় দেখা গেছে, করলায় প্রধানত তিনটি উপাদান রয়েছে। সেগুলো হলো পলিপেপটাইড পি, ভাইসিন, চ্যারনটিন। এই তিনটি উপাদান রোগীর রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। এর মধ্যে পলিপেপটাইড পি-এর ভূমিকা অনেকটা ইনসুলিনের মতো।

করলা খাওয়ার পরিমাণ ও পদ্ধতি

করলার জুস

                                                                        করলার জুস

জার্নাল অফ এথনোফার্মোকলজিতে একটি প্রতিবেদনে প্রকাশ হয়েছে যে, চার সপ্তাহ পরীক্ষার পরে একদল চিকিৎসক জানিয়েছেন, প্রতিদিন ২ গ্রাম করে করলা ডায়েটে রাখলে টাইপ ২ ডায়াবেটিস রোগীদের রক্তে শর্করার পরিমাণ তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে নিয়ন্ত্রণে থাকবে। চিকিৎসকরা পরামর্শ দিচ্ছেন, সকালেই খালি পেটে এক কাপ করলার জুস খেয়ে নিতে।

করলা খেলে আর যেসব উপকার হয়

ডায়াবেটিস-সহ আরো বেশ কিছু রোগের যম করলা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শুধু শর্করা নিয়ন্ত্রণই নয়, করলা আরো নানা গুণের অধিকারী। জ্বর, ঋতুকালীন যন্ত্রণা, সর্দি-কাশির সমস্যাতেও কাজ দেয় এই করলা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লুইস বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা দেখাচ্ছেন, করলার রস ব্রেস্ট ক্যানসারের কোষকে ধ্বংস করতে সক্ষম। তাই স্বাদের কথা না ভেবে, শরীরের কথা ভেবে ডায়েটে করলা যোগ করুন। তবে পরিমিত পরিমাণে তা খেতে হবে। তবেই আপনি থাকবেন সুস্থ।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর