• সোমবার   ০৩ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৮ ১৪২৯

  • || ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ফেরেশতাদের গালি দেওয়া কুফরি

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৭ আগস্ট ২০২২  

আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামাতের বিশ্বাস হলো কেউ ফেরেশতাদের অস্তিত্ব অস্বীকার করলে, তাদের প্রতি শত্রুতা পোষণ করলে, তাদের গালি দিলে অথবা তাদের প্রতি বিদ্রুপ পোষণ করলে তার ঈমান থাকবে না। সে কাফের বা অবিশ্বাসী বলে বিবেচিত হবে। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘যে ব্যক্তি আল্লাহ, তাঁর ফেরেশতাদের, তাঁর রাসুলদের এবং জিবরাঈল ও মিকাইলের শত্রু, সে জেনে রাখুক নিশ্চয়ই আল্লাহ অবিশ্বাসীদের শত্রু। ’ (সুরা : বাকারা, আয়াত ৯৮)

ইমাম তাবারি (রহ.) বলেন, ‘নিশ্চয়ই যে জিবরাঈলের সঙ্গে শত্রুতায় লিপ্ত হলো সে জিবরাঈলের সঙ্গে মিকাইল, সকল ফেরেশতা ও আল্লাহর রাসুলদের সঙ্গে শত্রুতায় লিপ্ত হলো।

কেননা আল্লাহ তাঁদের সবাইকে আল্লাহর ওলি ও অনুগত বলে ঘোষণা করেছেন। আর যে আল্লাহর ওলির সঙ্গে শত্রুতায় লিপ্ত হয়, সে আল্লাহর সঙ্গে শত্রুতায় লিপ্ত হয় এবং তাঁকে যুদ্ধের আহবান জানায়। ’ (তাফসিরে তাবারি : ২/৩০১)

অন্য আয়াতে আল্লাহ ফেরেশতাদের অস্বীকারকারীদের পথভ্রষ্ট বলেছেন। ইরশাদ হয়েছে, ‘কেউ আল্লাহ, তাঁর ফেরেশতা, তাঁর কিতাব, তাঁর রাসুল ও আখিরাতকে প্রত্যাখ্যান করলে সে তো ভীষণভাবে পথভ্রষ্ট হয়ে পড়বে। ’ (সুরা : নিসা, আয়াত : ১৩৬)

আল্লামা ইবনে হাজম (রহ.)-এর ভাষায় ফেরেশতাদের প্রতি মুমিনের মৌলিক বিশ্বাস হলো, ফেরেশতাদের অস্তিত্ব সত্য, তারা আল্লাহর সৃষ্টি, তারা সম্মানিত এবং তাঁরা সবাই বিধান বাস্তবায়নে আল্লাহর প্রতিনিধি। তিনি এই বিষয়ে কোরআনের নিম্নোক্ত আয়াতগুলো দ্বারা দলিল পেশ করেন। তা হলো—

ক. ‘এবং ফেরেশতারা তাদের কাছে উপস্থিত হবে প্রত্যেক দরজা দিয়ে এবং বলবে, তোমরা ধৈর্য ধারণ করেছ বলে তোমাদের প্রতি শান্তি; কত ভালো এই পরিণাম। ’ (সুরা : রাদ, আয়াত : ২৩-২৪)

খ. ‘বরং তারা আল্লাহর সম্মানিত বান্দা। ’ (সুরা : আম্বিয়া, আয়াত : ২৬)

গ. ‘সব প্রশংসা আকাশমণ্ডলী ও পৃথিবীর সৃষ্টিকর্তা আল্লাহরই—যিনি বাণীবাহক করেন ফেরেশতাদের, যারা দুই দুই, তিন তিন অথবা চার চার পক্ষবিশিষ্ট। ’ (সুরা : ফাতির, আয়াত : ১)

আল-মাউসুয়াতুল আকাদিয়া

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ