• বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৪

অতৃপ্তি জাহান্নাম ও জাহান্নামিদের বৈশিষ্ট্য

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২২  

মহান আল্লাহ আমাদের অসংখ্য অগণিত নিয়ামত দ্বারা বেষ্টিত করে রেখেছেন, যা গুনে শেষ করা কারো পক্ষে সম্ভব নয়। প্রত্যেক মানুষ প্রতি মুহূর্তে তাঁর দয়া আর অনুগ্রহের ওপরই আছে, যা শুধুমাত্র চিন্তাশীল লোকরাই অনুধাবন করতে পারে।

মহান আল্লাহর এত এত নিয়ামত ভোগ করার পরও কিছু লোক তাঁর শুকরিয়া আদায় করে না। পৃথিবীর কোনো জিনিসই তাদের তৃপ্তি দিতে পারে না, তাদের খাই খাই, নাই নাই স্বভাব তাদের বেপরোয়া করে তোলে।

নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্য তারা যেকোনো পাপে লিপ্ত হয়ে যেতে পারে। আল্লাহর বিধি-বিধানের কোনো তোয়াক্কাই করে না, যা তাদের ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেয়। হাদিস শরিফে ইরশাদ হয়েছে, বিশ্বনবী (সা.) বলেন, তিনটি গুণ মানুষকে মুক্তি দেয় ও তিনটি দোষ মানুষকে ধ্বংস করে। মুক্তি দানকারী তিনটি গুণ হলো : ১. গোপনে ও প্রকাশ্যে আল্লাহকে ভয় করা, ২. সন্তুষ্টি ও অসন্তুষ্টি উভয় অবস্থায় সত্য কথা বলা, ৩. সচ্ছলতা ও দরিদ্রতা উভয় অবস্থায় মিতব্যয়ী হওয়া। আর ধ্বংসকারী তিনটি দোষ হলো : ১. প্রবৃত্তির অনুসরণ, ২. লোভ-লালসা, ৩. আত্মমুগ্ধতা। আর এটিই সবচেয়ে মারাত্মক। (শুআবুল ঈমান, হাদিস : ৭২৫২)

প্রবৃত্তির অনুসরণই মানুষকে লোভী করে তোলে, লোভ থেকেই মানুষের মধ্যে সৃষ্টি হয় অতৃপ্তি। পবিত্র কোরআনে এ ধরনের স্বভাবকে জাহান্নামিদের স্বভাব বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে। ইরশাদ হয়েছে, ‘ওই দিন (কিয়ামতের দিন) আমি জাহান্নামকে জিজ্ঞাসা করব, তুমি কি পূর্ণ হয়ে গেছ? জাহান্নাম বলবে, আরো আছে কি?’ (সুরা : কাফ, আয়াত : ৩০)

আনাস ইবনে মালিক (রা.) থেকে বর্ণিত, নবী (সা.) বলেছেন, জাহান্নাম সর্বদাই বলতে থাকবে—আরো কি আছে? এমনকি রাব্বুল ইজ্জত তাতে তাঁর পা রাখবেন। ‘ব্যস, ব্যস’ জাহান্নাম বলবে, তোমার ইজ্জতের কসম! সেদিন তার একাংশ অন্য অংশের সঙ্গে মিলিত হয়ে যাবে। ’ (বুখারি, হাদিস : ৬৬৬১)

নাউজুবিল্লাহ, যারা জাহান্নামি হবে, তাদের সঙ্গেও জাহান্নামের এই স্বভাবের মিল আছে, তারা যতই পায় তাদের তৃপ্তি হয় না, বরং আরো পাওয়ার আশায় সব ধরনের পাপে লিপ্ত হতে দ্বিধাবোধ করে না। এবং আল্লাহ প্রদত্ত নিয়ামতের শুকরিয়া করে না। এ ধরনের কুপ্রবৃত্তি, লোভ-লালসা দিয়েই মহান আল্লাহ জাহান্নামকে ঘিরে রেখেছেন। হাদিস শরিফে ইরশাদ হয়েছে, আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, জান্নাত দুঃখ-কষ্ট ও শ্রমসাধ্য বিষয় দ্বারা ঘেরা এবং জাহান্নাম কুপ্রবৃত্তি ও লোভ-লালসা দ্বারা ঘেরা। (তিরমিজি, হাদিস : ২৫৫৯)

মহান আল্লাহ আমাদের এ ধরনের পাপ থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ