• মঙ্গলবার   ২৮ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৪ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

আয়না দেখার সময় যে দোয়া পড়বেন

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৭ মে ২০২২  

আল্লাহ তায়ালা ইসলামকে পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান হিসেবে নির্ধারণ করেছেন। মানুষকে সৃষ্টি করেছেন সুন্দর থেকে সুন্দরতম অবয়ব দিয়ে। নিজের চেহারাই যদি নিজে আয়না দেখি, আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করে শেষ করা যায় না।

আল্লাহ বান্দাকে কতইনা সুন্দর করে সৃষ্টি করেছেন। তাই আয়নায় নিজের চেহারা দেখার সময় আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করা উচিত। আল্লাহ উত্তম প্রতিদান দানকারী। আয়না দেখা ও পরিপাটি থাকা রাসুল (সা.)-এর সুন্নত। আয়না দেখার সময় কী দোয়া পড়তে হয়- এ ব্যাপারে বিভিন্ন বর্ণনা রয়েছে।

আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) আয়না দেখার সময় এই দোয়া পড়তেন-

اللهم أنت حسّنت خلقي فحسن خُلقي

উচ্চারণ: আল্লাহুম্মা আনতা হাস্সানতা খালক্বি, ফাহাসসিন খুলুক্বি।

অর্থ: হে আল্লাহ, আপনি আমার চেহারায় সৌন্দর্য দিয়েছেন। অতএব আমার চরিত্রেও সৌন্দর্য দান করুন। (আহমদ, হাদিস : ২৪৩৯২; আবু ইয়ালা, হাদিস : ৫০৭৫)

আয়েশা (রা.) বর্ণনা করেন, রাসুল (সা.) বলতেন- 

اللهُمَّ أَحْسَنْتَ خَلْقِي ، فَأَحْسِنْ خُلُقِي

উচ্চারণ: আল্লাহুম্মা আহসানতা খালক্বি, ফাআহসিন খুলুক্বি।

অর্থ: হে আল্লাহ, আপনি আমার চেহারা সুন্দর করেছেন। অতএব আমার চরিত্রও সুন্দর করে দিন। (সহিহুল জামে, হাদিস : ১৩০৭)

আলি ইবনে আবি তালিব (রা.) বর্ণনা করেন, রাসুল (সা.) যখন আয়নায় নিজের চেহারা দেখতেন তখন বলতেন-

الْحَمْدُ لِلَّهِ ، اللَّهُمَّ كَمَا حَسَّنْتَ خَلْقِي فَحَسِّنْ خُلُقِي

উচ্চারণ: আলহামদুলিল্লাহ, আল্লাহুম্মা কামা হাসসানতা খালক্বি ফাহাসসিন খুলুক্বি।

অর্থ: আল্লাহ তায়ালার কৃতজ্ঞতা, হে আল্লাহ আপনি আমার অবয়ব সুন্দর করেছেন, অতএব আমার আচরণও সুন্দর করে দিন। (আমলুল ইয়াওমি ওয়াল লাইলাহ, হাদিস : ১৬৩)

আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস বর্ণনা করেন, রাসুল (সা.) যখন আয়না দেখতেন তখন তিনি বলতেন-

الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي حَسَّنَ خَلْقِي وَخُلُقِي ، وَزَانَ مِنِّي مَا شَانَ مِنْ غَيْرِي

উচ্চারণ: আলহামদুলিল্লাহিল্লাজি হাসসানা খালক্বি ওয়া খুলুক্বি; ওয়া যানা মিন্নি মা শানা মিন গাইরি।

অর্থ: আল্লাহর শোকরিয়া, যিনি আমার চেহারা ও আচরণে সৌন্দর্য দিয়েছেন এবং আমাকে অন্য কারো অসৌন্দর্য থেকে রক্ষা করে সুন্দর করেছেন। (আবু ইয়ালা, হাদিস : ২৬১১)

আনাস ইবনে মালিক (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) যখন আয়নায় নিজের চেহারা দেখতেন, তখন তিনি বলতেন-

الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي سَوَّى خَلْقِي فَعَدَلَهُ ، وصَوَّرَ صُورَةَ وَجْهِي فَحَسَّنَهَا، وَجَعَلَنِي مِنَ الْمُسْلِمِينَ

উচ্চারণ: আলহামদুলিল্লাহিল্লাজি সাওয়া খালক্বি ফাআদালাহু, ওয়া সাওয়ারা সুওরাতা ওয়াজহি ফাহাসসানাহা, ওয়া জাআলানি মিনাল মুসলিমিন।

অর্থ: সব প্রশংসা আল্লাহর যিনি আমাকে ন্যায়সঙ্গতার সঙ্গে পূর্ণতা দিয়েছেন। আমার মুখাবয়ব সুন্দর‌ভাবে তৈরি করেছেন এবং আমাকে মুসলিম বানিয়েছেন।

আনাস ইবনে মালিক (রা.) থেকে বর্ণিত আরেক হাদিসে রয়েছে, রাসুল (সা.) হাতে আয়না নিয়ে তাতে তাকিয়ে বলতেন,

الحمد لله ، أكمل خلقي ، وحسن صورتي ، وَزَانَ مِنِّي مَا شَانَ مِنْ غَيْرِي

উচ্চারণ: আলহামদুলিল্লাহ, আকমালা খালক্বি, ওয়া হাস্সানা সুওরাতি, ওয়া যানা মিন্নি মা শানা দত গাইরি।

‘সব প্রশংসা আল্লাহর, যিনি আমার অঙ্গ-সৌষ্ঠবের পূর্ণতা দিয়েছেন এব আমার অবয়ব সুন্দর করেছেন। অন্যের অসুন্দরতা থেকে আমাকে রক্ষা করে সৌন্দর্য দিয়েছেন। (জাওয়ায়েদুজ জুহদ : ১১৭৪)

আয়নায় মুখ দেখাবিষয়ক যেসব দোয়া উল্লেখ করা হয়েছে, সেগুলোর ব্যাপারে হাদিসশবিশারদের মতামত রয়েছে। তারা হাদিসগুলো নির্ণয় করে বেশ কিছুকে দুর্বল হাদিস সাব্যস্ত করেছেন। তবে আমলের ক্ষেত্রে দুর্বল হাদিস অনুসরণে অসুবিধা নেই। আল্লাহ আমাদের সঠিকভাবে দ্বীন মেনে চলার তাওফিক দান করুন। আমিন। 

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ