• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৮ ১৪২৯

  • || ১০ রজব ১৪৪৪

তাড়াশে বিনোদপুর-বস্তুল সংযোগ ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০১৯  

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার আঞ্চলিক সড়কগুলো দীর্ঘদিন মেরামত ও নজরদারির
অভাবে পিচ-পাথর উঠে বেহাল হয়ে পড়েছে। সড়কগুলোর বেশীর ভাগ অংশে পিচ,
পাথর উঠে গিয়ে বড় বড় খানাখন্দক তৈরি হয়েছে। আঞ্চলিক সড়কগুলো এখন যেন
মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।
এদিকে উপজেলার বিনোপুর হইতে বস্তুল সড়কের কুসুম্বীর নামক স্থানে একটি
ব্রিজের ছাদ ভেঙে মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। নিরুপায় হয়ে প্রতিনিয়ত
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবহন ও জনসাধারণ ভাঙা ব্রিজের ওপর দিয়ে চলাচল
করছে। ফলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার আশঙ্কা রয়ে
গেছে।
উপজেলার কুসুম্বী গ্রামের রাজিব সরকার জানান, এই ব্রিজের উপর দিয়ে
প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। ব্রিজটির জীর্ণ দশার কারণে
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমরা চলাচল করছি। আমি দ্রুত ব্রিজটির সংস্কার করার
দাবী জানাচ্ছি।
এ প্রসঙ্গে তাড়াশ উপজেলা প্রকৌশলী আহমেদ আলী জানান, ইতিমধ্যে
ব্রিজটির বিষয় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আশা করি খুব
শিগগিরই ব্রিজটির ছাদের ভাঙা অংশ মেরামত করা হবে।

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার আঞ্চলিক সড়কগুলো দীর্ঘদিন মেরামত ও নজরদারির
অভাবে পিচ-পাথর উঠে বেহাল হয়ে পড়েছে। সড়কগুলোর বেশীর ভাগ অংশে পিচ,
পাথর উঠে গিয়ে বড় বড় খানাখন্দক তৈরি হয়েছে। আঞ্চলিক সড়কগুলো এখন যেন
মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।
এদিকে উপজেলার বিনোপুর হইতে বস্তুল সড়কের কুসুম্বীর নামক স্থানে একটি
ব্রিজের ছাদ ভেঙে মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। নিরুপায় হয়ে প্রতিনিয়ত
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবহন ও জনসাধারণ ভাঙা ব্রিজের ওপর দিয়ে চলাচল
করছে। ফলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার আশঙ্কা রয়ে
গেছে।
উপজেলার কুসুম্বী গ্রামের রাজিব সরকার জানান, এই ব্রিজের উপর দিয়ে
প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। ব্রিজটির জীর্ণ দশার কারণে
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমরা চলাচল করছি। আমি দ্রুত ব্রিজটির সংস্কার করার
দাবী জানাচ্ছি।
এ প্রসঙ্গে তাড়াশ উপজেলা প্রকৌশলী আহমেদ আলী জানান, ইতিমধ্যে
ব্রিজটির বিষয় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আশা করি খুব
শিগগিরই ব্রিজটির ছাদের ভাঙা অংশ মেরামত করা হবে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ