• বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৪

শাহজাদপুর কাঁপাচ্ছে ৩০ মণ ওজনের ‘সেকেন্দার’

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২২  

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের পুঠিয়া গ্রামের মৃত কাশেম সরকারের ছেলে মো. কোরবান সরকার। পেশায় তিনি একজন কৃষক। ছোটবেলা থেকেই গরু লালন-পালন করা তার খুব শখ। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে ‘অস্ট্রেলিয়ান ক্রস’ জাতের একটি গরু বড় করেছেন। তার নাম রেখেছে ‘সেকেন্দার’। ৩০ মণ ওজনের সেই ‘সেকেন্দার’ এবার এলাকা কাঁপিয়ে তুলছে। গরুটির দাম হাঁকা হয়েছে ১২ লাখ টাকা।

গরুর মালিক মো. কোরবান সরকার জানান, ‘সেকেন্দার’ তৈরি করতে তিন বছর সময় লেগেছে। তবে এখনো তেমন লোকজন জানাশোনা হয়নি। আমি পশু-পাখির প্রতি খুব যত্নশীল। সন্তানের মতোই ‘সেকেন্দার’কে বড় করে তুলেছি। দেশীয় পদ্ধতিতে ছোলা, সবুজ ঘাস, খৈল, ভুসি, চিটাগুড়, গম, মসুর, কালাই, খেসারি, জব, ভুট্টাসহ কেমিক্যাল ফ্রি পদ্ধতিতে তাকে বড় করা হয়েছে। প্রতিদিন ৮০০ টাকার খাবার তাকে খাওয়ানো হয়। এছাড়া পশু চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তার শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে ওষুধ খাওয়ানো হয়।

সরজমিন সোমবার (২৭ জুন) উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের পুঠিয়া গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিদিন শত শত মানুষ এই ‘সেকেন্দার’-কে দেখার জন্য কোরবানের বাড়িতে ভিড় করছেন। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে গরুটির দাম হাঁকা হয়েছে ১২ লাখ টাকা। পরম যত্নে যেন তাকে লালন-পালন করছে।

কোরবার সরকার জানান, আমার ইচ্ছা ‘সেকেন্দার’-কে বাড়ি থেকেই বিক্রি করব। তাই বিত্তশালীদের প্রতি তার আবেদন যেন গরুটির ন্যায্যমূল্য পায়।

‘অস্ট্রেলিয়ান জাতের ক্রস’ পুঠিয়া থেকে শাহজাদপুরে সৌখিন ও বিত্তবান মানুষের মাঝে এক বাড়তি আমেজ সৃষ্টি করেছে। সেই সাথে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও গরু নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে। সাদা-কালো রংয়ের পারহা-পারহি ‘সেকেন্দার’-কে দেখতে সৌখিনীরা প্রতিদিন তার বাড়িতে ড়িড় করছেন।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মিজানুর রহমান বলেন, গরুটি সম্পূর্ণ দেশীয় খাবার খাইয়ে লালন-পালন করা হয়েছে। গরুটি হলো ‘অস্ট্রেলিয়ান জাতের ক্রস’। এ জাতের গরু আমাদের দেশে এখন খামারিরা পালন করছে। আমার জানামতে গরুটি শাহজাদপুর উপজেলায় সবচেয়ে বড়। 

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ