• শনিবার   ২৮ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৯

  • || ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩

কাজিপুরে খামারীদের মাঝে মিল্ক ক্রীম সেপারেটর মেশিন বিতরণ

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৪ এপ্রিল ২০২২  

সিরাজগন্জের কাজিপুরে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরাধীন লাইভস্টক এন্ড ডেইরী ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের আওতায় খামারীদের মাঝে মিল্ক ক্রীম সেপারেটর মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।বুধবার (১৩ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে তিনটায় উপজেলা প্রাণী সম্পদ কার্যালয় ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের বাস্তবায়নে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে ইউএনও জাহিদ হাসান সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কাজিপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী।

স্বাগতিক বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ দিদারুল আহসান।অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ মাহমুদুল হাসান।এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি অফিসার রেজাউল করিম, উপজেলা প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ডাঃ বদিউজ্জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা রেফাজ উদ্দিন মাষ্টার, কাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান বিপ্লব, গান্ধাইল ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন প্রমুখ।

প্রাণিসম্পদ অফিস সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান সরকারের যুগোপযুগী সঠিক সিদ্ধান্ত ও অধিদপ্তরের আন্তরিক প্রচেষ্ঠায় দেশ আজ ডিম ও মাংস উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ। উৎপাদনে কিছুটা ঘাটতি থাকলেও তা অচিরেই স্বয়ং সম্পূর্ণতা অর্জন করতে সক্ষম হবে। উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের সঠিক কর্মপদক্ষেপের কারণে বর্তমানে আর এ অঞ্চলে কুরারোগ দেখা দেয় না (পূর্বে এর ফলে হাজার কোটি টাকা ক্ষতিসাধন হত)। কোরবানী ঈদে গরুর জন্য ভারত কিংবা মায়ানমার মুখাপেক্ষী হতে হয় না। প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা জানান এ মেশিনের দ্বারা খামারিয়া সহজেই দুধ( ননী)থেকে ক্রীম আলাদা করতে ঘি,মাখন,পনির তৈরি করতে পারবেন। এবং বাকি ক্রীম মিল্ক (ননী বিন্দু) দুধ দিয়ে ছানা,দই,মাঠা,লাবাং তৈরি করতে পারবেন।

উল্লেখ্য যে, প্রাণিসম্পদ ও ডেইরী উন্নয়ন
(এসডিডিপি) প্রকল্পের Emergency Action Plan (EAP) এর আওতায় অত্র উপজেলায় তিন ক্যাটাগরিতে ২২৩৬ জন ক্ষতি খামারী/কৃষক/সুফলভোগীর মাঝে ২,৫২,৭৬,২৫০/- টাকা বিতরণ করা হয়েছে।এসময় কাজিপুর উপজেলার সাতজন দুগ্ধ খামারীর মাঝে মিল্কক্রিম সেপারেটর মেশিন বিতরণ কর হয়েছে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ