• শনিবার   ১৩ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৯ ১৪২৯

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৪

জেনে নিন গার্লস হোস্টেলের ১০টি গোপন কথা!

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০১৮  

গার্লস হোস্টেল! এ এমন ঠিকানা যেখানে স্বাধীনতা, মজা আর ফ্যাশনের মকটেল তৈরি হয়৷ এখানেই শেষ নয়৷ অনেক সময় সাধারণ লোকের চর্চায় বিষয় হয়ে ওঠে গার্লস হোস্টেলের (hostel) অন্দরমহল৷ জেনে নিন গার্লস হোস্টেলের ১০ গোপন কথা৷

সেলফি টাইম
গার্লস হোস্টেলে থাকা মেয়েদের সবচেয়ে ভাল টাইমপাস হল সেলফি৷ কখনও একার বা কখনও সকলে মিলে গ্রুফি তুলেই তাদের দিন বেশ ভালো ভাবেই কেটে যায়৷

সম্পর্কের রসায়ন
বাড়ি ঘর ছেড়ে একা থাকতে আসা মেয়েদের সবচেয়ে ভরসার মানুষ হয়ে ওঠে তার রুমমেট৷ এই রুমমেটরাই তখন মেয়েটির ফ্রেন্ড ফিলোজফার অ্যান্ড গাইড৷ নতুন প্রেম বা প্রেমে ভাঙন সব কিছুতেই রুমমেটরা জ্ঞান দিতে থাকেন৷

এক্সারসাইজ সেশন
হোস্টেলে বসেই মেয়েরা একে অপরকে নিয়ে পরনিন্দা-পরচর্চায় মেতে ওঠেন৷ কে মোটা কে রোগা এই নিয়ে তাদের অলোচনা দীর্ঘ৷ এবার কেউ যদি বলে এক্সারসাইজ করা জরুরি তাহলে আর কথা নেই৷ গোটা হোস্টেল তখন যোগ গুরু হয়ে ওঠে৷ কিন্তু সবচেয়ে মজার বিষয় হল এক সপ্তার মধ্যেই শরীর চর্চা কেবল কথাতেই থেকে যায়৷

না পছন্দ হোস্টেলের খাবার
প্রতিদিন গার্লস হোস্টেলের অন্দরে ন্যাশনাল ইস্যু হয় তা হল খাবার৷ কখনও ডালে নুন বেশি তো কখনও আধ সিদ্ধ চাল নিয়েই চলে তাদের তর্ক৷

বাক্যালাপ
হোস্টেলের প্রতিটা কোণে একটা দৃশ্য একেবারে কমন৷ হোস্টেলের প্রতিটা কোণা খাপচিতে একজনকে দেখা যাবে ফোনে কথা বলতে৷ তবে তা অবশ্যই দু-চার মিনিটের ব্যাপার নয়৷ রাত গড়িয়ে সকাল হয়ে গেলেও তাদের কথা শেষ হওয়ার নয়৷

অনলাইন শপিং
হোস্টেলে থাকা মেয়েরা যে কি পরিমাণে অনলাইন শপিং করেন তা কল্পনার অতীত৷ কেউ একজন যদি ভুল করেও বলেন যে অমুক সাইটে জুতায় ছাড় দিচ্ছে, ব্যস সকলে নিলে ল্যাপটপ বা মোবাইলে বুকিং শুরু করে দেবেন৷

পোশাক বদল
প্রতিদিনই মেয়েরা তার আলমারির সামনে দাঁড়িয়ে অন্তত ১০ মিনিট ভাবেন আজ কি পড়ব? ফাইনালি যখন কিছুই মনমত পছন্দ হয়না তখন নিজের আলমারি ছেড়ে তার বান্ধবীর আলমারীতে উঁকি মারা শুরু করেন৷ শুরু হয় পোশাক আদান-প্রদান৷

ঘরসজ্জা
হোস্টেলের ঘর কেউ কেউ এমন ভাবে সাজান তাতে দেখলে মনে হবে তারা সারাজীবন ওই ঘরেই থাকবেন৷ আর ঘর সাজানোর সবচেয়ে সাধারণ বস্তু হল পরিবার আর বন্ধুদের সঙ্গে তোলা বিভিন্ন কায়দার ছবি৷

সৌন্দর্যের প্রতিযোগিতা
সবাই হয়ত বিশ্বসুন্দরীর খেতাব পাননি কিন্তু হোস্টেলের মেয়েরা সকলেই নিজেকে ঐশ্বরিয়া রাই মনে করেন৷ হোস্টেলের সবচেয়ে সুন্দর দৃশ্য হল নাচ আর মডেলিং সেশন, যেটা শুরু হয় রাতে খাওয়ার পর৷

ক্যাট ফাইট
হোস্টেলে যে সবাই সবার বন্ধু এমনটা ভাবা একেবারেই ভুল৷ সেক্ষেত্রে কারোর মধ্যে একবার ঝগড়া লাগলে সে পানি অনেক দূর অবধি গড়ায়৷

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ