মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১

১১ বছর বয়সী শিশুর বুকে গুলি করলো পুলিশ!

১১ বছর বয়সী শিশুর বুকে গুলি করলো পুলিশ!

৯১১ নম্বরে ফোন করে পুলিশকে সাহায্যের জন্য ডাকা হয়েছিল। কিন্তু ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ গুলি করে দেয় ১১ বছর বয়সী এক শিশুকে। যুক্তরাষ্ট্রের মিসিসিপি অঙ্গরাজ্যের পুলিশ ছেলেটির দেওয়া একটি ফোনে সাড়া দিয়ে ঘরোয়া ঝামেলা মেটাতে অ্যাডেরিয়ান মারের বাড়িতে পৌঁছায়। এরপর ওই শিশুর মায়ের মতে তার বুকে গুলি করে পুলিশ।

শিশু অ্যাডেরিয়ানের মা জানান, গুলিবিদ্ধ হওয়ার পরে অ্যাডেরিয়ান পুলিশকে প্রশ্ন করেছিল, ‘আমি কি করেছি?’ ঘটনার তদন্ত করার জন্য জড়িত ওই কর্মকর্তাকে ছুটিতে রাখা হয়েছে।

মিসিসিপি ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন এই ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে। স্থানীয় হাসপাতাল থেকে মুক্তি পাওয়ার পর ছেলেটি বাড়িতে সুস্থ হয়ে উঠছে। ক্ষতিগ্রস্থ ফুসফুস, ভাঙ্গা পাঁজর এবং ক্ষতবিক্ষত লিভার নিয়ে সে হাসপাতালে ভর্তি ছিল। তার মা নাকালা মারে ওই পুলিশ অফিসারকে বরখাস্ত এবং অভিযুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন।

নাকালা মারে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, তার আরেক সন্তানের বাবা শনিবার ভোরে তাদের বাড়িতে এসে ঝামেলা শুরু করেন। তার ছেলেকে পুলিশকে ফোন করার নির্দেশ দেওয়ার জন্য প্ররোচিত করেছিলেন তিনিই। ইন্ডিয়ানোলার পুলিশ এসেই দরজায় সামনে বন্দুক তাক করে ধরেন এবং ভিতরে থাকা সবাইকে বেরিয়ে যেতে বলেছিলেন। যখন তার ছেলে হলওয়ের কোণে ঘুরছিল তখনই পুলিশ গুলি চালায়।

নাকালা মারে কাঁদতে কাঁদতে জানান, ‘এভাবে আর চলতে পারে না। এটা ঠিক নয়।’ তিনি আরো জানান, হাত দিয়ে তিনি তার ছেলের গুলি লাগার স্থানটি চাপ দিয়ে ধরে ছিলেন এবং সাহায্যের জন্য অপেক্ষা করছিলেন।

অ্যাডেরিয়ানকে মিসিসিপি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। যেখানে তাকে ভেন্টিলেটরে রাখা হয়েছিল। নাকলা মারে এবং তার পরিবারের আইনজীবী কার্লোস মুর পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

নাকলা মারে বলেন, ওই পুলিশ অফিসারকে বেতন দিয়েই প্রশাসনিক ছুটিতে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। আগামীকাল শনিবার ইন্ডিয়ানোলায় বিক্ষোভের ডাক দেওয়া হয়েছে। বিক্ষোভকারীদের দাবি, পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হোক এবং তার শরীরে থাকা ক্যামেরার ভিডিওফুটেজ প্রকাশ করা হোক।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: