• মঙ্গলবার   ১৬ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ১ ১৪২৯

  • || ১৯ মুহররম ১৪৪৪

যেভাবে শরীরে ‘হ্যাপি হরমোনের’ নিঃসরণ বাড়াবেন

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৮ জুলাই ২০২২  

আপনি কি হ্যাপি হরমোনের কথা শুনেছেন? আমাদের মেজাজ, অনুভূতি, ভালো লাগা নিয়ন্ত্রণ করে চারটি হরমোন। এগুলোকে বলে হ্যাপি হরমোন। হরমোন মূলত শরীরের বিভিন্ন গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত রাসায়নিক বার্তাবাহক। ডোপামিন, সেরোটোনিন, অক্সিটোসিন ও এন্ডোরফিন—এই চার হ্যাপি হরমোন। এই হরমোনগুলোর কারণেই আমরা খুশি হই, আনন্দে থাকি। আমাদের মনমেজাজ ভালো থাকে। সম্প্রতি ওয়েল প্লাস গুড হ্যাপি হরমোন নিয়ে প্রকাশ করেছে একটি বিশেষ প্রতিবেদন। কী করলে এই হরমোনগুলোর নিঃসরণ বেড়ে যাবে, সেই প্রতিবেদন থেকে জেনে নেওয়া যাক।

প্রেমে পড়লে ডোপামিন বাড়ে

ডোপামিন ‘ফিল-গুড’ হরমোন নামেও পরিচিত। কেননা, আমাদের সব সুখানুভূতির সঙ্গে ডোপামিন জড়িত। আমাদের রক্তপ্রবাহে ডোপামিনের নিঃসরণ হলে তাৎক্ষণিকভাবে আমাদের মেজাজ ভালো হয়ে যায়। আমরা সুখী বোধ করি। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রেমে পড়লে অ্যাড্রিনাল গ্রন্থি থেকে সরাসরি ডোপামিন নিঃসৃত হয়। এ ছাড়া ভালো খাবার খেলে, লক্ষ্য অর্জন করলে, কোনো কাজ সম্পূর্ণ করলে, নিজের যত্ন নিলে বা সপ্তাহে দুই দিন চকলেট খেলেও ডোপামিন নিঃসরণ বাড়ে।

‘লাভ হরমোন’ অক্সিটোসিন

অক্সিটোসিনের অন্য নাম ‘লাভ হরমোন’। সন্তান প্রসবের পর মা–বাবা ও সন্তানের বন্ধন তৈরিতে প্রত্যক্ষভাবে ভূমিকা পালন করে এই হরমোন। এ ছাড়া এই হরমোন চুমু আর আলিঙ্গন, অর্থাৎ শারীরিক সম্পর্কের সময়ও সক্রিয় হয়। আপনি একটা সম্পর্কে ভরসা করবেন কি করবেন না, তা অনেকটাই এই হরমোন নির্ধারণ করে দেয়।

সেরোটোনিনের জন্য প্রকৃতির কাছে যান

আরেকটি হ্যাপি হরমোন হলো সেরোটোনিন। মেজাজ নিয়ন্ত্রণ ছাড়াও ঘুম, হজমক্ষমতা, শিক্ষা, ক্ষুধা, এমনকি শরীরের মেটাবলিজম সিস্টেম সচল রাখতেও সহায়তা করে সেরোটোনিন। সূর্যের আলোয় বা রোদে থাকলে, প্রকৃতির সংস্পর্শে থাকলে, যোগব্যায়াম করলে এই হরমোনের নিঃসরণ বৃদ্ধি পায়।

ব্যথা উপশমকারী এন্ডোরফিন

এন্ডোরফিন প্রকৃতিকভাবে শারীরিক ও মানসিক ব্যথা উপশম করে। যখন আমরা শারীরিক বা মানসিকভাবে আহত হই, এন্ডোরফিন সক্রিয় হয়। হাসলেই এন্ডোরফিন নিঃসৃত হয়। হাসলে আয়ু বাড়ে, হার্ট ভালো থাকে, ওজন কমে, শরীরের রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বৃদ্ধি পায়, হজমক্ষমতা বাড়ে। আর এসবের সঙ্গে ভালো থাকে আমাদের মন। তাই মন খুলে হাসুন। গান শুনলে, সিনেমা দেখলে, ব্যায়াম করলে, হাঁটলেও এন্ডোরফিন হরমোনের নিঃসরণ বাড়ে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ