• মঙ্গলবার   ২৮ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৪ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

গলুইয়ে অভিনয়ের কারণ জানালেন শাকিব খান

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৯ এপ্রিল ২০২২  

ঈদে মুক্তি প্রতীক্ষিত ছবি হিসেবে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় এসএ হক অলিক পরিচালিত সিনেমা ‘গলুই’। ছবিটির মধ্য দিয়ে প্রথমবার অনুদানের ছবিতে কাজ করলেন শাকিব খান। প্রথমবার তার নায়িকা হিসেবে দেখা যাবে পূজা চেরীকে। এসব পুরনো তথ্য ছাপিয়ে গতকাল যুক্তরাষ্ট্র থেকে নতুন বার্তা পাঠালেন শাকিব খান। জানালেন, ‘গলুই’-এ কাজ করে তার মুগ্ধতার কথা। বললেন, ‘এ ছবিতে কাজ করেছি নিজের দায়বদ্ধতা থেকে।’

বিশদ ব্যাখ্যা দিয়েছেন এ সুপারস্টার, ‘বিশ্বায়ন আর প্রযুক্তির প্রভাবে অনেকটাই বিলুপ্তির পথে আমাদের গ্রাম-বাংলার সংস্কৃতি। ফলে নতুন প্রজন্ম নিজেদের সংস্কৃতি ভুলতে বসেছে। আমি মনে করি, শেকড়কে না জানলে সামগ্রিকভাবে জাতির উন্নয়ন অসম্ভব। এজন্যইবোধহয় বিজ্ঞজনরা বলেন, সংস্কৃতি হচ্ছে জীবনের দর্পণ। সংস্কৃতি প্রতিটি ব্যক্তি, জাতি ও দেশের প্রকৃত পরিচয় বহন করে।’ সে পরিচয়ের গল্পটা গলুই ছবিতে খুঁজে পেয়েছেন শাকিব খান। বললেন, ঈদে মুক্তি পেতে যাওয়া আমার নতুন সিনেমা গলুইতে শেকড়ের গল্প তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। ছিল হারিয়ে যেতে বসা লোক ঐতিহ্য আর সংস্কৃতিকে সিনেমায় তুলে ধরার আপ্রাণ চেষ্টা। গলুই একটি চমত্কার মৌলিক গল্প ও হূদয় ছুঁয়ে যাওয়ার মতো সিনেমা। পিরিওডিক্যাল রোমান্টিক গল্প সহজ সরলভাবে উঠে এসেছে এ সিনেমায়। এতে আছে প্রতিটি বাঙালির শেকড়ের গল্প; আরো আছে বাইচের মতো প্রায় বিলীন হতে যাওয়া হারানো ঐতিহ্য। সবদিক বিবেচনায় নিজের দায়বদ্ধতা থেকে কাজটি করেছি। সরকারি অনুদানে এটি আমার অভিনীত প্রথম সিনেমা।

 

গলুই সরকারি অনুদানের ছবি হলেও এটিকে পুরোপুরি মূলধারার বাণিজ্যিক সিনেমা বলে অভিহিত করেছেন শাকিব খান। বলেছেন, পরিচালক, প্রযোজকসহ সিনেমাসংশ্লিষ্ট সবাই নিজের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করেছেন। আশা করছি, সব শ্রেণীর দর্শক ছবিটির সঙ্গে থাকবেন।

গলুই সিনেমার টিজার প্রকাশের পর দেশ-বিদেশের অগণিত মানুষের কাছ থেকে ইতিবাচক মন্তব্যে অভিভূত শাকিব খান। সে সূত্রে তিনি সবাইকে অনুরোধ করে বলেন, আসছে ঈদে বাবা-মা, ভাই-বোন, বন্ধু, আত্মীয়স্বজন, পরিবার-পরিজন সবাইকে নিয়ে সিনেমা হলে গিয়ে গলুই দেখার আমন্ত্রণ জানাই। আমার বিশ্বাস আপনারা অভিভূত হবেন।

শাকিব খানের পোস্টে কমেন্ট করেছেন পরিচালক হিমেল আশরাফ। তিনি লেখেন, ‘পৃথিবীর সকল সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি তাদের নিজেদের গল্প, নিজেদের সিগনেচার দিয়ে জায়গা করে নিয়েছে। তামিল কোনো দিন বলিউডকে কপি করে নাই। কোরিয়া, ইরান কোনো দিন হলিউডকে কপি করে নাই। বাংলাদেশ সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিও যদি বিশ্বে কোনো জায়গা তৈরি করতে চায় তবে নিজেদের গল্প, নিজেদের আবেগ, নিজেদের ঢঙে সিনেমা বানাতে হবে। যতদিন আমাদের বাংলা সিনেমায় আমাদের গল্প ছিল, ততদিন ছিল বাংলা সিনেমার গৌরবের সোনালি দিন। কলকাতা শুধু নয় বলিউডের অভিনেতারাও আমাদের সিনেমায় অভিনয় করতে আসতেন। যেদিন থেকে কপি পেস্ট আর অশ্লীলতা শুরু হলো সেদিন থেকে ডুবে গেল বাংলা সিনেমার সূর্য। একটা ইন্ডাস্ট্রির মূল ভিত্তি বাণিজ্যিক সিনেমা। আর বাংলাদেশের বাণিজ্যিক সিনেমার মূল ভিত্তি শাকিব খান। গলুই থেকে শুরু করে আপনার সামনের সকল মৌলিক গল্পের দেশীয় সিনেমা সারা বিশ্বে বাংলাদেশের সিনেমার একটা আলাদা অবস্থান তৈরি করবে অবশ্যই...।’

পিরিওডিক্যাল রোমান্টিক গল্পের ছবি গলুই ২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পায়। এর সহপ্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু। সিনেমাটির নির্মাতা এসএ হক অলিক বললেন, ‘আগামীকাল হাবিব ওয়াহিদের গাওয়া জমবে মেলা শিরোনামে বৈশাখের গানটি অবমুক্ত হবে। এর চার-পাঁচদিন পরেই ইমরান-কণার গাওয়া বৃষ্টি নিয়ে আরেকটি গান আসবে। এভাবেই আমরা ছবিটিকে এগিয়ে নিয়ে যাব ঈদের কাছে।’

চলচ্চিত্রটিতে শাকিবের নাম লালু। পেশায় ঢুলি। নৌকা চালাতেও তার নামডাক আছে। শাকিব খান ও পূজা চেরী ছাড়াও এতে অভিনয় করছেন আজিজুল হাকিম, সমু চৌধুরী, ঝুনা চৌধুরী প্রমুখ।

গত বছরের নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে যান শাকিব খান। সেই থেকে যুক্তরাষ্ট্রেই অবস্থান করছেন। একটি রিয়েলিটি শো ও বঙ্গ সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন। সম্প্রতি তার জন্মদিনে মার্কিন অভিনেত্রী কোর্টনি কফিকে নিয়ে নতুন সিনেমার ঘোষণা দেন। রাজকুমার নামে সিনেমাটি পরিচালনা করছেন হিমেল আশরাফ। যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশে সিনেমাটির শুটিং হবে। বাংলাদেশের পাশাপাশি বিশ্ববাজারে মুক্তির লক্ষ্যে সিনেমাটি প্রযোজনা করছে এসকে ফিল্মস।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ