সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১

যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ বিমান চলাচল সহযোগিতায় গুরুত্বারোপ

যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ বিমান চলাচল সহযোগিতায় গুরুত্বারোপ

সংগৃহীত

ঢাকা সফরকালে যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ বিমান চলাচল সহযোগিতার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) অ্যাটাশে ড্যানিয়েল জ্যাকব।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এফএএ অ্যাটাশে ড্যানিয়েল জ্যাকব ৯-১২ জুন ঢাকায় সফর করেছেন। সফরকালে তিনি বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (সিএএবি) চেয়ারম্যান এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে সাক্ষাৎ করেন।

এসময় তিনি বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে সরাসরি ফ্লাইটের লক্ষ্য অর্জনে প্রয়োজনীয় ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে এই বৈঠক। ড্যানিয়েল জ্যাকব যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশ সরাসরি ফ্লাইট অর্জনের প্রক্রিয়া ব্যাখ্যা করেন। ড্যানিয়েল জ্যাকব যুক্তরাষ্ট্র- বাংলাদেশ সরাসরি ফ্লাইট অর্জনের প্রক্রিয়া ব্যাখ্যা করেছেন:

১। বাংলাদেশের "ক্যাটাগরি ১" নিরাপত্তা রেটিং অর্জন করতে হলে, যুক্তরাষ্ট্রের এফএএ-এর ইন্টারন্যাশনাল এভিয়েশন সেফটি অ্যাসেসমেন্ট (আইএএসএ) বা আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল নিরাপত্তা মূল্যায়নে উত্তীর্ণ হতে হবে। ক্যাটাগরি ১ রেটিং নিশ্চিত করবে যে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার (আইসিএও) গুরুত্বপূর্ণ মান এবং প্রস্তাবিত অনুশীলন মেনে চলে। 

২। সিএএবি-এর অনুরোধে এফএএ ক্যাটাগরি ১ রেটিংয়ের জন্য আইএএসএ পরিচালনা করবে।  সিএএবি এখনও ইন্টারন্যাশনাল এভিয়েশন সেফটি অ্যাসেসমেন্ট (আইএএসএ) বা আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল নিরাপত্তা মূল্যায়নের জন্য এফএএ-কে অনুরোধ করেনি।

৩। সিএএবি যদি ক্যাটাগরি ১ রেটিং অর্জন করে, তার পরের ধাপে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রান্সপোর্টেশন সিকিউরিটি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (টিএসএ) একটি পৃথক মূল্যায়ন এবং পরিদর্শন পরিচালনা করবে। এই মূল্যায়ন নির্ধারণ করবে যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং বিমান এয়ারলাইনস যুক্তরাষ্ট্র-বাংলাদেশের মধ্যে সরাসরি ফ্লাইটের জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার শর্ত পূরণ করে কি না।

গত কয়েক বছর ধরে এফএএ এবং টিএসএ, সিএএবি এবং বিমান এয়ারলাইন্সকে আন্তর্জাতিক মানের নিরাপত্তা অর্জনের জন্য বিনামূল্যে প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদান করে আসছে। যুক্তরাষ্ট্র সরকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিনামূল্যে বিমানবন্দর স্ক্রিনিং সরঞ্জাম সরবরাহ করছে এবং বাংলাদেশী বিমান কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ প্রদান করছে যাতে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা মান পূরণ করতে পারে।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক

সর্বশেষ: