বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিতেই আস্থা যুক্তরাষ্ট্রের

নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিতেই আস্থা যুক্তরাষ্ট্রের

বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তার ওপরই আস্থা রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলনার এ কথা জানান। বুধবার (২৪ মে) মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন তিনি। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাবেক প্রেস সচিব মুশফিকুল ফজলের এক প্রশ্নে ম্যাথিউ মিলনার এ কথা বলেন।

মিলনার বলেন, বাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের দায়িত্ব ভোটার, রাজনৈতিক দল, সরকার, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, সুশীল সমাজ ও মিডিয়াসহ সবার।
এর আগে, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য সফরকালীন যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আশ্বস্ত করেন। আর তাতেই আস্থা রেখেছে মার্কিন প্রশাসন।

এ সময় বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে সরকারের লক্ষ্য অর্জনের সহায়তার অংশ হিসেবে একটি নতুন ভিসা নীতির ঘোষণাও দেন তিনি। নতুন এ ভিসা নীতি অনুযায়ী, বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচনে বাধা দিতে কিংবা ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায় এমন কাউকেই যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা দেয়া হবে না বলে জানান ম্যাথিউ মিলনার। নতুন এ ভিসা পলিসি কোনো নিষেধাজ্ঞা কি না–জানতে চাইলে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, এটি কেবলই একটি ভিসা পলিসি। এটি কোনো নিষেধাজ্ঞা নয়। নির্বাচন বানচাল কিংবা সুষ্ঠু নির্বাচনে বাধা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা হিসেবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এ ভিসা পলিসির আওতায় বিরোধী দল কোনো সহিংসতা করলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়ার ইঙ্গিত দেয়া হয়। এর আগে, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন নতুন এ ভিসা পলিসি নিয়ে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি টুইট করেন। তিনি লেখেন, বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের পথে বাধা সৃষ্টিকারীদের ভিসা প্রদানে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: