• বুধবার   ১০ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৪

সহজে-স্বচ্ছন্দে পদ্মা সেতু পার

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৮ জুন ২০২২  

মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করার পর শৃঙ্খলা ফিরেছে পদ্মা সেতুতে। যানবাহন থামিয়ে সেতুর ওপর হাঁটাহাঁটি বন্ধ হওয়ায় গতকাল নির্বিঘ্নে গাড়ি পার হতে পেরেছে। জোরদার করা হয়েছে সেনা ও পুলিশের টহলও।

সর্বসাধারণের চলাচলের জন্য পদ্মা সেতু খুলে দেওয়ার দ্বিতীয় দিন গতকাল সোমবার স্বাচ্ছন্দ্যে সেতু পার হয়েছে মানুষজন। টোল প্লাজায় অপেক্ষা করতে হয়নি, সহজেই টোল দিয়ে পারাপার হয়েছে যানবাহন। সেনা সদস্যরা সেতুর ওপর নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেছেন। ছিলেন ভ্রাম্যমাণ আদালতও।

গতকাল থেকে এই সেতু দিয়ে মোটরসাইকেল পারাপার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ফেরি দিয়ে পারাপার করা হয়েছে বাইকারদের। প্রথম দিন সেতু পার হওয়া যানবাহনের ৬০ শতাংশই ছিল মোটরসাইকেল। প্রথম দিন (রবিবার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা) পদ্মা সেতু দিয়ে ৫১ হাজারের বেশি যানবাহন পারাপার হয়েছে। টোল আদায় হয়েছে দুই কোটি টাকারও বেশি।

কয়েক সেকেন্ডে টোল পরিশোধ

প্রথম দিনে সেতুর মাওয়া প্রান্তে টোল প্লাজা খোলার নির্ধারিত সময়ের আগেই যানবাহন আসায় প্রায় তিন কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছিল। তবে গতকাল সেই পরিস্থিতি ছিল না। তাই যান চলাচলে ছিল স্বাচ্ছন্দ্য। খুব সহজে টোল পরিশোধ করে দক্ষিণের জেলাগুলোর উদ্দেশে ছেড়ে যায় যানবাহন।

গতকাল সকালে পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তের টোল প্লাজায় গিয়ে দেখা যায়, সেখানে যানবাহনের সারি নেই। কোনো গাড়ি আসার সঙ্গে সঙ্গে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই টোল দেওয়া সম্পন্ন হচ্ছে। এরপর গাড়ি পদ্মা সেতুতে উঠে যাচ্ছে। সেনাবাহিনীর সদস্যদের সেতুর ওপর নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করছেন সেতুর ওপর।

বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবুল হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, সেতু খুলে দেওয়ার প্রথম দিন মোটরসাইকেল আরোহীদের কারণে কিছু বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। দুর্ঘটনায় দুজন নিহত হয়। তাই সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ রাখতে হয়েছে। সেতুর নিরাপত্তা, মানুষের নিরাপত্তা ও দুর্ঘটনা রোধে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী কাজ করছে। গতকাল সকাল থেকে সেতুতে কয়েকটি দলে সেনাসদস্যরা টহল দিচ্ছেন।

ফেরিতে মোটরসাইকেল পারাপার

এদিকে পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করার পর গতকাল শিমুলিয়া ঘাটে ফেরি দিয়ে মোটরসাইকেল পার করা হয়েছে। সকাল ১০টার দিকে ফেরি কুঞ্জলতা শিমুলিয়া ঘাট থেকে ১১৯টি মোটরসাইকেল নিয়ে মাঝিরকান্দির উদ্দেশে রওনা দেয়। মাঝ পথে নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরিটি ডুবোচরে আটকে যায়। প্রায় তিন ঘণ্টার চেষ্টায় ফেরিটি উদ্ধার হওয়ার পর সেটি মাঝিরকান্দির ঘাটে পৌঁছে। বিকেলে ফেরিটি মাঝিরকান্দি ঘাট থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে শিমুলিয়ায় ফেরে।

শিমুলিয়া ঘাটে জসিম উদ্দিন নামের এক মোটরসাইকেলচালক আক্ষেপ করে বলেন, ‘ভেবেছিলাম পদ্মা সেতু চালু হলে প্রতিদিন ফরিদপুর থেকে ঢাকায় এসে অফিস করব; কিন্তু পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল নিয়ে ওঠা নিষিদ্ধ করা হয়েছে, এখন আর তা সম্ভব হলো না। ’

বিআইডাব্লিউটিসির মেরিন অফিসার আহমেদ আলী জানান, কুঞ্জলতা ছেড়ে যাওয়ার পর ফেরিটি মাঝিকান্দি চ্যানেলে ডুবোচরে আটকা পড়ে। তিন ঘণ্টার চেষ্টায় উদ্ধার করে সেটি গন্তব্যে পাঠানো হয়।

শিমুলিয়া ঘাটে আরো মোটরসাইকেল অপেক্ষমাণ থাকলেও কুঞ্জলতা আটকে যাওয়ায় অন্য কোনো ফেরি আর ঘাট থেকে ছেড়ে যায়নি। এদিকে নদীপথে মোটরসাইকেল পারাপার বন্ধ হয়ে গেলে দুপুর ১২টার দিকে মাওয়া টোল প্লাজার কাছে থেকে একটি পিকআপ ভ্যানে করে কয়েকটি মোটরসাইকেল নিয়ে সেতু পার হতে গেলে সেখানে কর্তব্যরত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যরা সেটি আটকে দেন। পিকআপ থেকে নামিয়ে দেওয়া হয় সব মোটরসাইকেল।

পদ্মা সেতু (উত্তর) থানার ওসি আলমগীর হোসাইন বলেন, ‘মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধে আমাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সে নির্দেশনা বাস্তবায়ন করছি। ’

এদিকে মোটরসাইকেল পার হতে না দেওয়ায় গতকাল জাজিরা প্রান্তে বিক্ষোভ করে বাইকাররা। দুপুরের দিক টোল প্লাজা সংলগ্ন এক্সপ্রেসওয়ে অবরোধ করে তারা। ১৫ মিনিট পর সেখানে সেনাবাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিলে যানবাহন পারাপার শুরু হয়।

প্রথম দিনে টোল দুই কোটি টাকা

পদ্মা সেতুর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশল তোফাজ্জল হোসেন জানিয়েছেন, প্রথম দিন রবিবার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সেতু দিয়ে ৫১ হাজার ৩১৬টি গাড়ি চলাচল করেছে। এ থেকে টোল আদায় হয়েছে দুই কোটি ৯ লাখ ৪০ হাজার ৩০০ টাকা। ওই দিন প্রথম ২৪ ঘণ্টায় সেতুর মাওয়া প্রান্ত দিয়ে ২৬ হাজার ৫৮৯টি গাড়ি পার হয়। টোল আদায় হয় এক কোটি আট লাখ ৯৫ হাজার ৯০০ টাকা। জাজিরা প্রান্ত দিয়ে ২৪ হাজার ৭২৭টি গাড়ি পার হয়। টোল আদায় হয় এক কোটি ৪৪ হাজার ৪০০ টাকা।

তোফাজ্জল হোসেন বলেন, সেতু দিয়ে রবিবার যেসব গাড়ি চলাচল করেছে তার ৬০ শতাংশই ছিল মোটরসাইকেল। এখন মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় গতকাল সোমবার টোল প্লাজায় কোনো গাড়িকে অপেক্ষা করতে হয়নি। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে টোল দিয়ে যানবাহনগুলো স্বাচ্ছন্দ্যে পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে গন্তব্যে গেছে।

সেতুতে গাড়ি পার্কিং, জরিমানা

পদ্মা সেতুর ওপরে হাঁটা ও গাড়ি পার্কিং রোধে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হয়েছে। এই আদালত গতকাল এক ব্যক্তিকে এক হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মুন্সীগঞ্জের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল কবীর জানান, পদ্মা সেতুর ওপর দাঁড়িয়ে এক ব্যক্তি ছবি তুলছিলেন, সেতুর ওপর অবৈধভাবে গাড়ি পার্কি করার অপরাধে তাঁকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এদিকে মাওয়া প্রান্তে সেতুর কাছে গতকাল বিকেলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পেঁয়াজবোঝাই একটি ট্রাক উল্টে চালকসহ তিনজন আহত হয়েছে। পদ্মা সেতু উত্তর থানার ওসি আলমগীর হোসাইন জানান, চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে ট্রাকটি সড়কের পাশের রেলিংয়ের সঙ্গে ধাক্কা লেগে উল্টে যায়। এতে ট্রাকের চালক, তাঁর সহকারীসহ তিনজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। সেতুতে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

জাজিরায় সেনাবাহিনীর বিফ্রিং

পদ্মা সেতু নিয়ে প্রেস ব্রিফিং করেছেন পদ্মা সেতুর প্রকৌশল সহায়তা ও নিরাপত্তা টিমের সমন্বয়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. রবিউল আলম। গতকাল বিকেলে সেতুর জাজিরা প্রান্তের টোল প্লাজায় ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, সেতুর ওপরে যানবাহন থামিয়ে জনসাধারণ যানবাহন থেকে নেমে সেতুর সৌন্দর্য অবলোকন করছে এবং ছবি ভিডিও ধারণ করছে। এতে সেতুর ওপর যানজটসহ দুর্ঘটনার ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ ছাড়া সেতুর ওপর রক্ষিত গুরুত্বপূর্ণ মালামাল ও যন্ত্রপাতির ক্ষতি সাধিত হচ্ছে। এ অবস্থায় সেনাবাহিনীর ভ্রাম্যমাণ টহল জোরদার করা হয়েছে। ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. ফাহিম মাহবুব।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ