মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১

সহপাঠীর বাবার চিকিৎসায় মাটির ব্যাংকের টাকা দিল শিক্ষার্থীরা

সহপাঠীর বাবার চিকিৎসায় মাটির ব্যাংকের টাকা দিল শিক্ষার্থীরা

আহসান হাবিব। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অধ্যায়রত এক শিক্ষার্থীর বাবা। দীর্ঘদিন প্রবাসে কাটিয়েছেন। তবে অসুস্থ হবার পর দেশে ফিরে এখন বাড়িতে প্যারালাইজড হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এমন অবস্থায় হাবিবের চিকিৎসায় আর্থিকভাবে সহযোগিতা করতে এগিয়ে এসেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার শংকরবাটী পোল্লাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

তারা মাটির ব্যাংক ভেঙে ১৩ হাজার ৬১০ টাকা দিয়েছে ওই অসুস্থ অভিভাবককে। রোববার বিদ্যালয় চত্বরে ১৩ হাজার ৬১০ টাকাসহ মাটির ব্যাংকটি অসুস্থ আহসান হাবিবের স্ত্রীর হাতে তুলে দেয় বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী। এসময় উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ঠিকাদার সমিতির সাবেক সভাপতি ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক খাইরুল ইসলাম, বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি শহীদুল হুদা অলক ও প্রধান শিক্ষক মনোয়ারা খাতুন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনোয়ারা খাতুন বলেন, ‘সহায়তার এ অর্থ সামান্য হলেও আশার কথা যে এটা বছর বছর বাড়ছে। এ ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের যে ইতিবাচক মনোভাবও বাড়ছে, তা বোঝা যাচ্ছে। বিদ্যালয়ের সমাবেশে এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্বুদ্ধ করেন শিক্ষকেরা। শিক্ষকেরাও ওই তহবিলে অর্থ সহায়তা দেন।’

তিনি আরে বলেন, ‘বিশেষ করে যখন কাউকে এ সহায়তার দিনক্ষণ ঠিক করা হয়, তখন সব শিক্ষক তাৎক্ষণিক ওই তহবিলে অর্থ দেন। ওই সময় উপস্থিত অভিভাবকেরাও অর্থ সহায়তা করেন। এলাকার বেশির ভাগ অভিভাবকই গরিব। তবু শিক্ষার্থীরা সঞ্চয় ব্যাংকে টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে জমা দেয়। বিষয়টি অনেক আনন্দদায়ক।’ উল্লেখ্য, পোল্লাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিফিন খরচ থেকে মাটির ব্যাংকে জমানো টাকা এ নিয়ে চতুর্থ বার অসহায় মানুষকে দেওয়া হলো।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

সর্বশেষ: