• শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

২১

হজরত ওমরের (রা.) সঙ্গে এক শিশুর সাহসিকতা

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৭ জুন ২০২০  

সিনান ইবনে মাসলামা, যিনি বাহারাইন এর শাসক ছিলেন। বাল্যকালের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, একদা আমরা কয়েকজন শিশু খেজুর গাছের নিচে পড়ে থাকা খেজুর কুড়াচ্ছিলাম।

হঠাৎ দেখা গেল ওমর (রা.) আসছেন। তাকে দেখেই শিশুরা এদিক সেদিক পালিয়ে গেল কিন্তু আমি নিজের জায়গায় ঠায় দাঁড়িয়ে রইলাম। ওমর (রা.) এর চোখের দিকে তাকিয়ে ছিলাম। তিনি কাছে এসে ধমকে উঠলেন, এই ছেলে এখানে কি করছিলে?

আমি বিনয়ের সঙ্গে বললাম, গাছের নিচে কিছু খেজুর পড়ে ছিল, সেগুলো কুড়াচ্ছিলাম। সত্যি বলছি, আমি কোনো গাছে ঢিল মারিনি।

তিনি বললেন, তোমার কোঁচড়ে কি খুলে দেখাও?

আমি খুলে দেখালাম।

তিনি বললেন, তুমি ঠিক বলেছো।

আমি তাকে সাহস করে বললাম, আমিরুল মুমিনীন, আড়াল থেকে অন্য শিশুরা আমাদেরকে লক্ষ্য করছে। আপনি চলে যাওয়া মাত্রই তারা এসে আমার সব খেজুর কেড়ে নেবে। আপনি কি একটু কষ্ট করে আমাকে বাড়িতে পৌছে দেবেন?

আমার সাহসে ওমর (রা.) হতবাক হয়ে গেলেন। কিন্তু রাগ না করে হেসে বললেন, চলো তোমাকে বাড়ি পৌঁছে দেই।

শিক্ষা: আজকের শিশু কালকের ভবিষ্যত। একদিকে শিশুটি যেমন তার সততার কারণে আমিরুল মুমিনীনকে ভয় না পেয়ে সাহসিকতা দেখিয়েছে অপরদিকে আমিরুল মুমিনীনও বাচ্চাটিকে যথেষ্ট স্নেহ করে পাশে দাঁড়িয়েছে। তাই আমাদেরও উচিত শিশুদের প্রতি এমন দয়াশীল হওয়া।

সূত্র : প্রতিভার গল্প

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
ধর্ম বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর