• রোববার   ৩১ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭

  • || ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

১৯

ভুট্টা চাষে ব্যাপক সফলতা, খুশি চৌহালী চরের চাষীরা

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৯ মে ২০২০  

সিরাজগঞ্জের চৌহালী চরাঞ্চলে চলতি মৌসুমে ভুট্টা চাষে ব্যাপক সফলতা এসেছে। বাজার দাম ভালো পাওয়ায় চাষীরাও খুশি রয়েছেন।স্থানীয় চাষীরা জানান, চৌহালী উপজেলা যমুনা নদীর চরে অনেক জমি বছরের পর বছর পতিত থাকে। এসব পতিত জমিতে তেমন কোন ফসল চাষ করা যায়না।

তবে ওইসব জমিতে ভুট্টা চাষের উজ্জ্বল সম্ভবনা থাকায় চলতি মৌসুমে চাষীরা চাষাবাদে আগ্রহী হয়ে পড়েন। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সুত্রে জানা গেছে, উপজেলায় চলতি মৌসুমে ৬০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়।

ডিসেম্বর মাসে বীজ বপনের পর এপ্রিলের শেষের দিকে ভুট্টা ঘরে তোলা পর্যন্ত আবহাওয়া অনুকূল ছিল। চরাঞ্চরের বেলে-দোয়াশ মাটির জমিতে বীজ বপনের পর থেকেই গাছ তরতর করে বেড়ে উঠতে থাকে। প্রচুর ফলন আসে। প্রতিটি গাছে ৫-৮ টি করে ভুট্টার কলা ধরে। চাষীরা গড়ে প্রতি মণ (৪০ কেজি) ভুট্টা ৬০০ টাকায় বিক্রি করেন। চরের কোনো কোনো চাষী এককভাবে জমিতে ভুটা চাষ করেন।

কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা আরও জানান, এবার প্রতি হেক্টর জমিতে গড়ে ৮ মেট্রিক টন ভুট্টার ফলন হবে। বিপনন করতে পুরুষ শ্রমিকদের পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক নারী শ্রমিক দিনরাত কাজ করছেন।

নারীরা দক্ষ হয়ে উঠায় এ কাজে তাদের কদর বাড়ছে। উপজেলার খাষকাউলিয়া ইউনিয়নের উত্তর খাষকাউলিয়া গ্রামের কৃষক আলহাজ বহুত আলীর ছেলে ফরিদ উদ্দিন (বহলুল)জানান, আমি এবার পরীক্ষা মূলক ভাবে ৩৩ শতক জমিতে ভুট্টা চাষ করেছি । ফসল সংগ্রহ করছি, আল্লাহ মর্জি ভালো ফসল হয়েছে ৷ তিনি আরো বলেন,  আমার ১ বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ ও কাটা মাড়াইয়ে মোট খরচ হয়েছে পাঁচ থেকে ছয় হাজার টাকা। প্রতি বিঘা জমি থেকে ভুট্টা পাওয়া যাচ্ছে ৩৫-৪০ মণ পর্যন্ত।

চৌহালী উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ জেরিন আহমেদ বলেন, উপজেলা বিভিন্ন চরাঞ্চলে ৬০ হেক্টর জমিতে সুপারসাইন-২৭৬০ জাতের ভুট্টা চাষ করে হেক্টর প্রতি ফলন হয়েছে মোট ৮.২৫ মেট্রিকটন আর মোট ফলন হয়েছে ৪ শত ৯৫ মেট্রিকটন ৷আমাদের পরামর্শ ও যাবতীয় কারিগরি সহযোগিতা এবং আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় চরের চাষীদের মুখে হাসি দেখা দিয়েছে।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর