• বৃহস্পতিবার   ০৯ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৫ ১৪২৭

  • || ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪১

৪৫

বাতের ব্যথা সারাবে আলুর রস!

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ১১ মার্চ ২০২০  

সবজি হিসেবে আলুর জুড়ি মেলা ভার। প্রায় সব কিছুতেই আলু সমান সঙ্গ দেয়। আলুতে রয়েছে ফাইটোকেমিক্যালস, ভিটামিন এবং খনিজ যেমন ভিটামিন সি, বি, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন, জিঙ্ক, ফসফরাস। যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই দরকারি।

তবে জানেন কি? রান্না করা আলুতে নয় বরং আলুর রসে রয়েছে অনেক স্বাস্থ্য সমস্যার সমাধান। যদিও এটি খেতে অন্য ফল বা সবজির রসের মতো সুস্বাদু নয় তবে এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক বেশি। চলুন জেনে নেয়া যাক এর উপকারিতাগুলো- 

> যাদের হজমে সমস্যা রয়েছে তারা নিয়মিত লাল আলুর রস খেতে পারেন। একটি সমীক্ষা অনুসারে, আলুর রস অ্যাসিড রিফ্লাক্স কমিয়ে গ্যাস্ট্রাইটিস থেকে মুক্তি দেয়। এজন্য প্রতিদিন দুই থেকে তিন বার খাবারের আধা ঘণ্টা আগে আলুর রস পান করুন। 

> আলুর রসে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। যা ঠাণ্ডাসহ বিভিন্ন সংক্রমণ বিরুদ্ধে লড়াই করতে শরীরে শক্তি যোগাবে। ভিটামিন সি আপনার শরীরে ক্ষতিকর রোগজীবাণুগুলো প্রতিরোধ করে। এমনকি দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতা থেকে সুরক্ষা দেয়। 

> আলুর রসে রয়েছে ডিটক্সাইফিং এজেন্ট। যা শরীর থেকে বর্জ্য এবং টক্সিন নির্মূল করে লিভারের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। তাই লিভার ভালো রাখতে নিয়মিত আলুর রস খাওয়ার বিকল্প আর কিছুই হতে পারে না। 

> রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস বা বাত একটি দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহজনিত ব্যাধি। যা হাত এবং পায়ের জয়েন্টগুলোকে প্রভাবিত করে। অনেকেই বাতের ব্যথায় কষ্ট পান। তাদের জন্য আলুর রস পান করা একটি দুর্দান্ত প্রতিকার। খাওয়ার আগে এক থেকে দুই চামচ কাঁচা আলুর রস পান করুন।  

> কাঁচা আলুর রসে রয়েছে ভিটামিন সি। যা ওজন হ্রাস করতে সহায়তা করে। খাওয়ার পরে আলুর রস পান করলে আপনার ক্ষুধা কমে যাবে। ফলে অত্যধিক খাওয়া থেকে বিরত থাকতে পারবেন। আর এতে করে ওজন থাকবে নিয়ন্ত্রণে।   

> আলুর রসে থাকা জিঙ্ক এবং ভিটামিন সি ক্ষত নিরাময়ের খুবই সহায়ক। এছাড়াও এতে থাকা কোলাজেন এবং প্রোটিন দ্রুত কোষের বৃদ্ধি ঘটায়।   

> আলুর রসে ভিটামিন বি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। যা রক্ত সঞ্চালন উন্নত করতে সহায়তা করে। যা ত্বকের কোষগুলোকে পুষ্ট করতে সহায়তা করে। এমনকি বলিরেখা এবং বয়সের ছাপ কমিয়ে দেয়। তাই আপনার ত্বক সুস্থ রাখতে আলুর রস পান করুন নিয়মিত। 

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর