• মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪১

১৯৮

ডাক্তার ছুটিতে, রোগীরা দুর্ভোগে

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৮ জুন ২০১৯  

পটুয়াখালীর কলাপাড়া ৫০ শয্যা হাসপাতালে ওষুধ ও ডাক্তার সংকটে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছে উপজেলার অসংখ্য রোগী। খাবার স্যালাইন ছাড়া কোনো ওষুধ দেয়া হচ্ছে না। ঈদের ছুটি শেষ হলেও কর্মস্থলে ফেরেননি ডাক্তাররা।

এদিকে প্রচণ্ড গরমে বেড়েছে ডায়রিয়াসহ পানিবাহিত রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও হাসপাতালে খাবার স্যালাইন ছাড়া কোন ওষুধই দেয়া হচ্ছে না রোগীদের। সংকটের কারণে রোগীদের পটুয়াখালী ও বরিশালে রেফার করা হচ্ছে।

হাসপাতার সূত্রে জানা যায়, মাত্র তিনজন ডাক্তার দিয়ে উপজেলার তিন লক্ষাধিক মানুষকে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। মঙ্গলবার পর্যন্ত ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছে ৩৮ জন শিশু। এছাড়া আউটডোরে চিকিৎসা নিচ্ছে কয়েকশ রোগী।

রোগীদের অভিযোগ, আগে ডাক্তাররা ভিজিট নিতো, ওষুধও দিতো। এখন ভিজিটও নেয় না, ওষুধও দেয় না। ওষুধ চাইলে জানায় হাসপাতালে ওষুধই নেই। কলেরার স্যালাইন, এন্টিবায়োটিকসহ পাঁচ-সাত ধরনের ওষুধ বাইরে থেকে কিনতে হচ্ছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালে ৩৬ জন ডাক্তারের মধ্যে ২৬টি পদই শুন্য। কর্মরত ১০ জন ডাক্তারের মধ্যে কলাপাড়া ৫০ শয্যা হাসপাতালের পাঁচ জন। এর মধ্যে আবার ছুটিতে আছেন দুই জন।

হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স খাদিজা আক্তার বলেন, ঈদের আগের দিন থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত ৩৮ জন ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছে। খাবার স্যালাইন ছাড়া এই মুহূর্তে তাদের কোনো ওষুধ দেয়া যাচ্ছে না। এছাড়া চিকিৎসক সংকটের কারণে রোগীদের রেফার করতে হচ্ছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. চিন্ময় হাওলাদার জানান, কিছু ওষুধের সংকট রয়েছে। এ জন্য ইনডেন দেয়া হয়ে

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
জনদূর্ভোগ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর