• বুধবার   ২৭ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

১৬

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য নির্ধারণ হতে পারে আগামীকাল

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ৭ মে ২০২০  

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাকি আর মাত্র ৫ মাস। আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে কি হবে না তা নিয়ে এখনও রয়েছে ঘোর সংশয়। চারপাশ থেকেই দাবি উঠছে বিশ্বকাপটা পিছিয়ে দেয়ার জন্য। কিন্তু আইসিসি এখনও এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি।

করোনাভাইরাসের মহামারি শুরুর পর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যতবারই আইসিসি বৈঠক হয়েছে, সবগুলোতেই ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটি জানিয়েছে, তারা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই তবে সিদ্ধান্ত নেবে। আপাতত সময় যেভাবে চলছে, চলতে থাকুক।

তবুও শঙ্কা কাটছে না। চারদিক থেকে আইসিসির ওপরও চাপ তৈরি হচ্ছে। এমতাবস্থায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য নির্ধারণে ভাবতে বাধ্য হচ্ছে আইসিসি। আগামীকালই (৮ মে, শুক্রবার) তারা টেলি কনফারেন্সে বৈঠক করবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) সাথে। একটাই এজেন্ডা, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সম্ভাবনা নিয়ে আলাপ করা।

সর্বশেষ সিএ বলেছিল, তারা আইসিসির ২৩ এপ্রিল প্রধান নির্বাহীদের যে বৈঠক হয়েছিল, সেটাকেই অনুসরণ করছে। ২৩ এপ্রিল আইসিসির সদস্যদেশগুলোর প্রতিটি প্রধান নির্বাহীদের বৈঠকে আলোচনা করা হয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ব্যাপারে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘তারা এ নিয়ে খুব নিবিড়ভাবে কাজ করছে। একই সঙ্গে তারা কাজ করছে বিশ্বকাপের স্থানীয় আয়োজক কমিটি অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে।

শুধু তাই নয়, অস্ট্রেলিয়া সরকারও এর সঙ্গে জড়িয়ে গেছে। কারণ, সরকারই যুগপযোগি একটা পরামর্শ দিতে পারবে, আসলে এই মুহূর্তে কি করা দরকার কিংবা আদৌ বিশ্বকাপ আয়োজন সম্ভব কি না।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী কেভিন রবার্টস ২৩ এপ্রিল আইসিসিকে বলেছিল, ‘ইভেন্টটি (বিশ্বকাপ) আয়োজনে সম্ভাব্য সব বিকল্প নিয়েই আমরা এগুচ্ছি। আমরা সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্তিই নেবো।’

আগামীকাল (শুক্রবার) যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে আইসিসির সঙ্গে, সেখানেও একই মনোভাব প্রকাশ করবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। কারণ, টুর্নামেন্ট নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে তাদের সামনে এখনও বেশ কিছু সময় রয়েছে।

আগামীকালের বৈঠকে কি হবে, সে ধারণা দিয়ে আইসিসি এবং সিএ’র সংশ্লিষ্ট ডিপার্টমেন্ট থেকে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানানো হয়েছে, ‘একটি বিবৃতিছাড়া আর কিছুই এ সময় আশা করা যায় না। আইসিসির নির্ধারিত বোর্ড মিটিং অনুষ্ঠিত হবে খুব শিগগিরই। সেখানে সম্ভবত আইসিসির নতুন কোনো চেয়ারম্যান আসতে পারে। কোনো সিদ্ধান্ত হয়তো এরপরই আসতে পারে।’

টাইমস অব ইন্ডিয়ার মতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে তিনটি চিত্র দাঁড়াতে পারে-
১. ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনে রাজি হতে পারে, অন্য বোর্ডগুলোর অনুমতি স্বাপেক্ষে। সে ক্ষেত্রে টুর্নামেন্টটি হবে কম ভেন্যু এবং দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে।

২. টুর্নামেন্টটি এক বছর পিছিয়ে দেয়া হতে পারে। ২০২১ সালের ঠিক একই সময়ে আয়োজনের সিদ্ধান্ত হতে পারে। সে ক্ষেত্রে পরের বছরই ভারতে হবে আরেকটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

৩. কিংবা অস্ট্রেলিয়া স্থগিত হওয়া টুর্নামেন্টটিই আয়োজন করতে পারে ২০২২ সালে।

তবে এখনও পর্যন্ত রেকর্ড বলছে, ২০২২ সালে আইসিসির কোনো টুর্নামেন্ট সিডিউল নেই।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর