• শনিবার   ১৫ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১ ১৪২৮

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

গরমে সুস্থ থাকতে ‘পান্তা ভাত’

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২৭ মার্চ ২০২১  

শুধুমাত্র পহেলা বৈশাখে নিয়ম করে পান্তা খাওয়া বাঙ্গালীদের অভ্যাস। অনেকে সখ পূরণে পান্তা খায়। আবার কেউ কেউ বাধ্য হয়েও পান্তা খেয়ে থাকে। পান্তা খাওয়া শরীরের জন্য ক্ষতিকর বলেও মনে করেন অনেকেই। কিন্তু এই ধারণাটি ভুল। গরমে পান্তা শরীরের পক্ষে অনেক উপকারি। এটি শরীর ঠাণ্ডা রাখে। এছাড়াও এর রয়েছে নানা উপকারিতা। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক পান্তা ভাতের গুণাগুণ-   

১. পান্তা ভাত খেলে শরীর হালকা থাকে এবং কাজে বেশি শক্তি পাওয়া যায়।

২. রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকে।

৩. পেটের ব্যথা ভালো হয় এবং শরীরে তাপের ভারসাম্য বজায় রাখে।

৪. মন মেজাজ ভালো রাখে।

৫. মানব দেহের জন্য উপকারি বহু ব্যাকটেরিয়া পান্তা ভাতের মধ্যে বেড়ে যায়।

৬. কোষ্ঠবদ্ধতা দূর হয় এবং শরীর সতেজ থাকে।

৭. সব রকম আলসার দূরীভূত হয়।

৮. শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

৯. এলার্জির সমস্যা থাকলে পান্তা ভাত তা কমাতে সাহায্য করে,ত্বকও ভালো রাখে।

পান্তা ভাতের আরো কিছু গুণাবলী
- পান্তা ভাত ভিটামিন বি-৬ এবং ভিটামিন বি-১২ এর ভালো উৎস।

- এ ভাতে রয়েছে হাড় ও পেশি শক্তি বৃদ্ধির উপাদান এবং বার্ধক্য প্রতিরোধ ক্ষমতা।

- এ ভাতের মধ্যে রয়েছে অনেক উপকারি ব্যাকটেরিয়া যা খাদ্য হজম করতে সহায়তা করে এবং বহু রোগ প্রতিরোধ করে।

১০০ গ্রাম পান্তা ভাতে (১২ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখার পর) ৭৩.৯১ মিলিগ্রাম আয়রন থাকে, যেখানে সম-পরিমাণ গরম ভাতে থাকে মাত্র ৩.৪ মিলিগ্রাম। এছাড়া ১০০ গ্রাম পান্তাভাতে পটাশিয়ামের পরিমাণ বেড়ে হয় ৮৩৯ মিলিগ্রাম এবং ক্যালসিয়ামের পরিমাণ বেড়ে হয় ৮৫০ মিলিগ্রাম, যেখানে সম-পরিমাণ গরম ভাতে ক্যালসিয়াম থাকে মাত্র ২১ মিলিগ্রাম। এছাড়া পান্তা ভাতে সোডিয়ামের পরিমাণ কমে হয় ৩০৩ মিলিগ্রাম যেখানে সম-পরিমাণ গরম ভাতে সোডিয়াম থাকে ৪৭৫ মিলিগ্রাম।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ