• বুধবার   ২৭ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭

  • || ০৪ শাওয়াল ১৪৪১

করোনা ডিঙিয়ে জুনে অনুশীলনে ফিরছে শ্রীলংকা

আলোকিত সিরাজগঞ্জ

প্রকাশিত: ২১ মে ২০২০  

ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ এবং ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে নির্ধারিত সময়েই দুই দেশের সঙ্গে সিরিজ আয়োজন করতে চায় ক্রিকেট শ্রীলংকা। দুই দেশের দুই বোর্ড জানিয়েছে সব কিছু নির্ভর করছে পরিস্থিতির উপর। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি কিংবা ভারতীয় করিকে বোর্ডের (বিসিসিআই) দিকে তাকিয়ে বসে থাকছে না শ্রীলংকা। আগামি জুন মাস থেকেই তাদের ক্রিকেটারদের অনুশীলনে ফেরানোর পরিকল্পনা জানিয়েছে দেশটির প্রধান কোচ মিকি আর্থার।

লংকান ক্রিকেট বোর্ড আপ্রাণ চেষ্টা করছে নিজ দেশে যত দ্রুত সম্ভব ক্রিকেট ফেরাতে। এর আগে বিসিসিআই'কে আইপিএল তাদের দেশে আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছিল। আর এরপরেই আগের নির্ধারিত সময়ে ভারত এবং বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলতে চায় শ্রীলংকা। সে কারণে সেদেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিশেষ অনুমতি পত্রও গ্রহণ করেছে লংকান ক্রিকেট বোর্ড।

বুধবার (২০ মে) আবারও লংকান ক্রিকেট মাঠে ফেরানোর লক্ষ্যে সেদেশের বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলে ডি সিলভা, প্রধান নির্বাচিক আসান্থা ডি মেল এবং চিকিৎসকদের সঙ্গে বৈঠন করেন প্রধান কোচ মিকি আর্থার। সে বৈঠক শেষেই নতুন সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আলোচনা করেন তারা। দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে সবুজ সংকেত প্রদান করলেই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

মিকি আর্থার বলেছেন, 'বুধবার ক্রিকেট ফেরানোর বিষয়ে আমাদের একটা বৈঠক হয়েছে। আমরা জুনের ১ তারিখ থেকেই অনুশীলন শুরুর পরিকল্পনা করছি। এখন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে সবুজ সংকেত আসলেই অধিনায়ক ও কোচিং স্টাফের সঙ্গে বিস্তারিত সব আলোচনা করা হবে।’

তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সবুজ সংকেত পাওয়াতে স্বাস্থ্যবিধি শিকেই তুলবে না লংকান ক্রিকেট বোর্ড। ক্রিকেটারদের পূর্ণ স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করেই শুরু হবে অনুশীলন। আর এই লক্ষ্যে কয়েক সেশনে ভাগ করে ক্রিকেটারদের অনুশীলন শুরু করবে তারা। এক্ষেত্রে অবশ্য শুরুতে অগ্রাধিকার পাবেন পেসাররা। আর্থারের জানান, ‘এখন পর্যন্ত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দিক থেকে ইতিবাচক ইংগিত আছে। তবে শুরুতে অনুশীলন হবে ছোট ছোট দলে ভাগ করে। আমরা পেসারদের অগ্রাধিকার দেব, কারণ তাদের ছন্দ পেতে অন্যদের চেয়ে বেশি সময় লাগার কথা।’

করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিকে সফলই বলা চলে। এখন পর্যন্ত সে দেশে মাত্র ১ হাজার ২৮ জন কোভি-১৯'এ আক্রান্ত হয়েছে যার মধ্যে ৫ শ ৮৪ জন সেরে উঠেছে। দীপ রাষ্ট্রটিতে এই মহামারী ভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছে মৃতের সংখ্যা ৯ জন। আর নিজ দেশের করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাফল্যের কারণেই এত দ্রুত ক্রিকেট মাঠে ফেরানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে আত্মবিশ্বাসী লংকান ক্রিকেট বোর্ড।

আলোকিত সিরাজগঞ্জ
আলোকিত সিরাজগঞ্জ
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর